২রা জুন, ২০২০ ইং ১৯শে জ্যৈষ্ঠ, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ

samakalnew24
samakalnew24
শিরোনাম:
বিয়ের এত বছর পরেও কেনো এই তারকরা নিঃসন্তান ! যেভাবে লোক ঠকানো হচ্ছে তাতে আমি সুস্থ হয়েও আবার অসুস্থ... বাস ভাড়া বৃদ্ধির প্রতিবাদে বগুড়ায় মানববন্ধন বরগুনায় ভিজিএফ চাল আত্মসাতের অভিযোগে দুই ইউপি... নন্দীগ্রামে করোনায় চিকিৎসক আক্রান্ত

বৃক্ষ মানব আবারো ঢাকা মেডিকেলে ভর্তি।

 ইমদাদুল হক,পাইকগাছা,খুলনা।। সমকালনিউজ২৪

খুলনার পাইকগাছার বিরল রোগ ট্রি ম্যান’ সিনড্রোমে আক্রান্ত আবুল বাজনদার আড়াই বছর চিকিৎসারত অবস্থায় কাউকে কিছু না বলেই চলে গিয়েছিলেন।

 

রোববার সকালে হাতে নতুন গজানো শেকড় নিয়ে আবারও ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে (ঢামেক) ফিরেছেন সেই ‘বৃক্ষমানব’।

 

আবুলের হাতে ছোট-বড় প্রায় ২৫টি অস্ত্রোপচার করেছিলেন চিকিৎসকরা। তবে চিকিৎসার আড়াই বছরের মাথায় ২০১৮ সালের ২৭ মে হাসপাতাল থেকে উধাও হয়ে যান তিনি। ঢামেকের রেজিস্ট্রি খাতায় তাকে ফেরারি হিসেবে দেখানো হয়েছিল।
রোববার ঢামেকে আসার পর তাকে বার্ন ইউনিটে ভর্তি করা হয়েছে।

 

বাজানদারের বিষয়ে ঢামেক বার্ন ইউনিটের সমন্বয়ক ড. সামন্ত লাল সেন সমকাল নিউজ ২৪ ডট কমকে বলেন, ‘বাজনদারের সঙ্গে আমার যতবার কথা হয়েছে আমি তাকে ফিরে আসতে বলেছি। রোববার সে ফিরে এসেছে। তার হাতের অবস্থা খারাপ। অস্ত্রোপচার করতে হবে। সোমবার পরীক্ষা-নিরীক্ষা করে তার বিষয়ে সিদ্ধান্ত নেয়া হবে।’

 

২০১৬ সালের ৩০ জানুয়ারি খুলনার পাইকগাছা উপজেলার আবুল বাজানদার ৫ কেজি ওজনের শেকড়ওয়ালা হাত নিয়ে প্রথম ঢামেকে ভর্তি হন। এপিডার্মো ডিসপ্লেশিয়া ভেরুকোফরমিস ভাইরাসের আক্রান্ত এই রোগে বাংলাদেশের প্রথম রোগী তিনি। দেশ-বিদেশে চলে এই ‘বৃক্ষমানব’ আলোচনা। ঢামেকে ২৫টি অস্ত্রোপচারের পর কিছুটা সুস্থ হলে কাউকে কিছু না বলে হাসপাতাল ছেড়ে চলে যান তিনি।

প্রতিদিনের খবর পড়ুন আপনার ইমেইল থেকে
খুলনা বিভাগের সর্বশেষ
খুলনা বিভাগের আলোচিত
ওপরে