১৮ই এপ্রিল, ২০১৯ ইং ৫ই বৈশাখ, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ

samakalnew24
samakalnew24
শিরোনাম:
যৌতুক দাবী করায় বরকে ন্যাড়া করে ফেরত পাঠালো কনে পক্ষ খুলনা সার্কিট হাউসে মতবিনিময় সভায় নিমন্ত্রন পেলেন... লাইভে কুরআন ছিড়ে টয়লেটে নিক্ষেপ সেফুদার, ফাঁসি দাবী বরগুনায় মানবিক সহায়তা’১৯ প্রকল্পের শিক্ষণ কর্মশালা... অনগ্রসর শিক্ষার্থীদের মাঝে স্কুল ব্যাগ ও খেলার সামগ্রী...

বেতাগীতে সড়কের পাশে অবৈধ ভাবে বিক্রি হচ্ছে খোলা পেট্রল

 শফিকুল ইসলাম ইরান সমকাল নিউজ ২৪

বেতাগীতে শতাধিক বিক্রেতা ডিপো লাইসেন্স ২টি। উপজেলার বিভিন্ন পয়েন্ট বেতাগী-চান্দুখালী-বরগুনা ও বেতাগী-নিয়ামতি-বাকেরগঞ্জ এবং বেতাগী-সুবিদখালী-মির্জাগঞ্জ- এ তিনটি মহাসড়কের পাশে শতাধিক স্পটে অবৈধভাবে বিক্রি হচ্ছে খোলা পেট্রল।

মহাসড়কের পাশে মোড়ে মোড়ে বোতলে ভরে দেদারসে পেট্রল বিক্রি করা হচ্ছে। অবৈধভাবে খোলা পেট্রল ও অকটেন বিক্রি নিষিদ্ধ থাকলেও বিক্রেতারা তা মানছে না। মহাসড়ক ও বাইপাস সড়কের পাশে পেট্রল বিক্রি করায় দুর্বৃত্তরা সহজভাবে হাতের নাগালে এ সকল দাহ্য পদার্থ পেয়ে যাচ্ছে। এভাবে পেট্রল বিক্রি করায় সন্ত্রাসীরা সহজে নাশকতার সুযোগ পাচ্ছে। সড়কের পাশে অবৈধ পেট্রল বিক্রি বন্ধে প্রশাসনের কোনো তদরকি নেই বলে অভিযোগ এলাকাবাসীর।

বরগুনা জেলা প্রশাসক অফিস সূত্রে জানা গেছে, বরগুনার বেতাগী উপজেলায় কোন ফিলিং ষ্টেশন না থাকলেও ২টি ডিপোর লাইসেন্স রয়েছে। কিন্তু খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, বেতাগী উপজেলা সংলগ্ন বেতাগী-চান্দুখালী-বরগুনা, বেতাগী-নিয়ামতি-বাকেরগঞ্জ ,বেতাগী-সুবিদখালী-মির্জাগঞ্জ মহাসড়কের পাশে মোড়ে মোড়ে ও বিভিন্ন বাজারে শতাধিক ক্ষুদ্র ব্যবসায়ী অবৈধভাবে পেট্রল বিক্রি করছে। কয়েকজন ক্ষুদ্র পেট্রল ব্যবসায়ীর সাথে কথা বললে তারা নাম না প্রকাশের শর্তে বলেন, আমাদের ফায়ার সার্ভিস এর ছাড়পত্র ও অনুমোদন আছে। আবার মাঝে মাঝে তারা তাগেদায় আসে খরচ দিলে সমস্যা হয় না।
বেতাগী-চান্দুখালী-বরগুনা ও বেতাগী-নিয়ামতি-বাকেরগঞ্জ এবং বেতাগী-আমড়াগাছিয়া-সুবিদখালী-মির্জাগঞ্জ মহাসড়কের, বেতাগী বাসষ্ট্যান্ড,হাসপাতাল রোড, বেইলী ব্রিজ,পালের কান্দা রোড,বটতলা বাজার ,মোকামিয়া বাজার, সোনার বাংলা বাজার, বঙ্গবন্ধু রোড ,কাজির হাট বাজার,কাউনিয়া বাজার, বারো ঘর, চান্দুখালী বাজার, তিন রাস্তার মোর ও লক্ষিপুরা,পুটিয়াখালী,ঝোপখালী,বিবিচিনি,ডিসিরহাট, নিয়ামতি, এবং গৌরঙ্গ, আমড়াগাছিয়া, সুবিদখালী,বটতলা এছাড়াও কদমতলা ,ফুলতলা,নীলখোলা,জলিশা,পোলেরহাট বাজারসহ নানা পয়েন্টে শতাধিক ক্ষুদ্র ব্যবসায়ী অবৈধভাবে বোতলজাত করে পেট্রল বিক্রি করছে পেট্রল নামক দাহ্য পদার্থ। পেট্রল বিক্রেতারা মহাসড়কের পাশে টেবিলের উপরে বোতল ও কন্টেইনারে ভরে পেট্রল বিক্রি করা হচ্ছে। প্রয়োজন মতো মোটরসাইকেল ও যানবাহন চালকেরা পেট্রল কিনে নিচ্ছেন।
বেতাগী-বরগুনা মহাসড়কের পাশে তারেক রহমান বলেন, শহীদ ও জামাল অবাধে টেবিলে পেট্রল বোতলজাত করে বিক্রি করছেন। নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক কয়েকজন বলেন, হাতের নাগালে পেট্রল বিক্রি করায় সন্ত্রাসীরা অহরহ পেট্রল পেয়ে যাচ্ছে। এতে খুব সহজে সন্ত্রাসীরা নাশকতার কাজে পেট্রল ব্যবহার করতে পারে।

স্থানীয় বাসিন্দা ও শিক্ষিকা সৈয়দা মনিকা বলেন, পেট্রল হাতের নাগালে পাওয়ায় সন্ত্রাসীরা খুব সহজে নাশকতার কাজে তা ব্যবহার করতে পারবে। অতি দ্রুত প্রশাসনের কাছে এ দাহ্য পদার্থ সড়ক ও মহাসড়কের পাশে বিক্রি বন্ধের দাবী জানাই।

বেতাগী ফায়ার সার্ভিসের এস.ও মো. সালাউদ্দিন মিয়া বলেন, ছাড়পত্রের ব্যাপারে আমাদের বেতাগী অফিসের কোন হাত নেই আমরা শুধুমাত্র জনসচেতনতা বৃদ্ধি ও আগুন নেভাতে সহায়তা করে থাকি।

বেতাগী থানার অফিসার ইনচার্জ মো: কামরুজ্জামান মিয়া বলেন, উক্ত বিষয়টি আমারা শুনেছি তবে এব্যাপের উপজেলা নিবার্হী কর্মকর্তার সাথে কথা বলে ব্যবস্থা নেয়া হবে।

এ ব্যাপারে বেতাগী উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মো: রাজীব আহসানের সাথে কথা বললে তিনি “সমকাল নিউজ ২৪ ডট কম”কে বলেন, আমি ইতোমধ্যে এ ব্যাপারে শুনেছি। সড়ক ও মহাসড়কের পাশে অবৈধভাবে বোতলজাত করে পেট্রল বিক্রি করা আইনসম্মত নয়। এতে সহজেই নাশকতার আশঙ্কা থাকে। যারা সড়ক ও মহাসড়কের পাশে পেট্রল বিক্রি করছে তাদের বিরুদ্ধে ভ্রাম্যমাণ আদালতের মাধ্যমে দ্রুত ব্যবস্থা নেয়া হবে।

বরগুনা জেলা ফায়ার সার্ভিস ষ্টেশন এর উপ সহকারী পরিচালক মো. সোহেল রানা এর সাথে কথা বললে তিনি বলেন, আমরা একটা ছাড়পত্র দিয়ে থাকি তবে আর একটি অনুমোদন জেলা প্রশাসকের কার্যালয় থেকে দেয়ার কথা। আর ফায়ার সার্ভিস কোন ধরনের আর্থিক লেনদেন করেন না এমন সকল বক্তব্য ভিত্তিহীন। তবে আমরা অচিরেই ছাড়পত্র বিহীন খোলা পেট্রল ব্যবসায়ীদের বিরুদ্ধে মোবাইল কোর্ট পরিচালনা করবো।

Print Friendly, PDF & Email

প্রতিদিনের খবর পড়ুন আপনার ইমেইল থেকে
বরগুনা বিভাগের আলোচিত
ওপরে