১৯শে মার্চ, ২০১৯ ইং ৫ই চৈত্র, ১৪২৫ বঙ্গাব্দ

samakalnew24
samakalnew24
শিরোনাম:
রাকসু আন্দোলন মঞ্চকে আলোচনা সভা করতে দেয়নি প্রশাসন কালাইয়ে আ.লীগের দু”পক্ষের সংঘর্ষে ঘটনায় ইউপি... রাঙ্গামাটিতে ব্রাশ ফায়ারে প্রিসাইডিং অফিসারসহ নিহত ৭ নওগাঁর ১০ উপজেলায় উপজেলা পরিষদ নির্বাচন কেন্দ্রে ভোটার... রাতের আঁধারে ঘুম থেকে জাগিয়ে হত্যা

ব্যবসায়ীদের বাধার মুখে রাসায়নিক গুদাম উচ্ছেদ স্থগিত

 নিজস্ব প্রতিনিধিঃ সমকাল নিউজ ২৪
ব্যবসায়ীদের বাধার মুখে রাসায়নিক গুদাম উচ্ছেদ স্থগিত

পুরান ঢাকার বকশি বাজারের জয়নাগ রোডে রাসায়নিকের গুদাম উচ্ছেদ অভিযানে গিয়ে ব্যবসায়ীদের বাধার মুখে পড়েছেন ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের (ডিএসসিসি) টাস্কফোর্স। তাদের বিক্ষোভের মুখে অভিযান স্থগিত করতে বাধ্য হর তারা। অভিযান স্থগিতের সংবাদ শুনে ডিএসসিসি মেয়র সাঈদ খোকন বলেছেন, ‘আমি যাবো, কে বাধা দেবে আমি দেখবো।’

চকবাজার থানা পুলিশ জানায়, শনিবার সকালে সিটি করপোরেশনের একটি দল জয়নাগ রোডের একটি আবাসিক ভবনে কেমিক্যালের গুদাম খুঁজে পায়। এরপর ভবনটির বিদ্যুৎ ও গ্যাস সংযোগ বিচ্ছিন্ন করার সময় এলাকার ব্যবসায়ীরা স্লোগান দিতে থাকে এবং তাদের তোপের মুখে অভিযান স্থগিত করতে বাধ্য হয় টাস্কফোর্স।

বিষয়টি জানার পর অভিযানের বিষয়ে নগরভবনে সংবাদ সম্মেলন করেন ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের মেয়র সাঈদ খোকন। ব্যবসায়ীদের বাধা দেওয়ার বিষয়টি উল্লেখ করে তিনি বলেন, ‘আমাদের একটি টিম আজ সকালে বকশীবাজারে গিয়েছিল। কিন্তু এক শ্রেণির ব্যবসায়ী অভিযানে বাধা দিয়েছে। রাসায়নিকের মজুদ আছে বা অবৈধ গুদাম আছে এরকম ভবন-স্থাপনা চিহ্নিত করে আমরা প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নিতে শুরু করি। ঝুঁকি এড়াতে ভবনগুলোর গ্যাস ও বিদ্যুৎ সংযোগ বিচ্ছিন্ন করার উদ্যোগ নিই। কিন্তু ব্যবসায়ীরা আমাদের সহযোগিতা করেনি।’

‘আমরা গুদাম সরানোর জন্য সময় দিয়েছি। তাদের সঙ্গে কথাবার্তাও বলেছি। কিন্তু ব্যবসায়ীরা কথা শোনেননি। তাই আমাদের টিম ফিরে এসেছে’ বলেন মেয়র।

মেয়র সাঈদ খোকন বলেন, ‘দাপ্তরিক কাজ শেষে আমি দুপুর ২টার পর ওই এলাকায় যাব। আবারও অভিযান চালানো হবে। যতই বাধা আসুক না কেন, কোনো বাধা মানা হবে না। অভিযান চলবে।’

‘ব্যবসায়ীদের অভিযোগ সময় না দিয়েই, তাদের সঙ্গে কোনো আলাপ-আলোচনা না করেই অভিযান চালানো হচ্ছে’ সাংবাদিকরা জানতে চাইলে মেয়র বলেন, ‘ব্যবসায়ীদের অনেক সময় দেওয়া হয়েছে। বারবার তাগাদা দেওয়া হয়েছে। চকবাজারে আগুন লাগার ঘটনার পরও তাদের সতর্ক করা হয়েছে। এখন ব্যবসায়ীরা যদি অভিযোগ তোলে তাহলে সেটি মিথ্যা।’

উল্লেখ্য, গত ২০ ফেব্রুয়ারি রাতে রাজধানীর চকবাজারের চূড়িহাট্টায় আগুন লাগে। আগুনে এ পর্যন্ত ৭১ জনের মৃত্যু হয়েছে। আগুনে দগ্ধ ও আহত বেশ কয়েকজন ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের বার্ন ইউনিটে ভর্তি রয়েছেন।

চকবাজারে অগ্নিকাণ্ডের পর পুরান ঢাকায় রাসায়নিক গুদাম অপসারণের জন্য অভিযানে নামে বিশেষ টাস্কফোর্স। সিটি করপোরেশনের তত্ত্বাবধানে টাস্কফোর্সের এই অভিযান চালানো হচ্ছে।

Print Friendly, PDF & Email

প্রতিদিনের খবর পড়ুন আপনার ইমেইল থেকে
ওপরে