১৭ই অক্টোবর, ২০১৯ ইং ২রা কার্তিক, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ

samakalnew24
samakalnew24
শিরোনাম:
রি’ফাত হ’ত্যা মা’মলার প্রধান আ’সামির জা’মিন... স্পেনে টাইগার মাদ্রিদের নতুন জার্সি উন্মোচন ও... দ্বিতীয় বারের মত শুভসন্ধ্যা সৈকতে হতে যাচ্ছে জোছনা উৎসব বরগুনা সরকারি কলেজে পরিচ্ছন্নতা অভিযান সমাপ্ত ঝালকাঠিতে খাদ্য অধিকার আইনের দাবিতে সমাবেশ

ব্রীজ না হওয়ায় জীবনের ঝুকি নিয়ে বাশের সাঁকোয় পারাপার করছেন দুই উপজেলার ৫০ হাজার মানুষ

 মোঃ ইলিয়াস আলী সমকালনিউজ২৪

ঠাকুরগাঁও জেলার পীরগঞ্জ উপজেলার ১০ নং জাবরহাট ইউনিয়ন দিয়ে বয়ে যাওয়া টাঙ্গন নদীর আতাই ঘাটে দীর্ঘদিনেও নির্মাণ হয়নি ব্রিজ। এতে ব্রিজের অভাবে ২ উপজেলার প্রায় ৫০ হাজার মানুষ জীবনের ঝুঁকি নিয়ে বাঁশের সাঁকো দিয়ে যাতায়াত করছেন। নদীর এপারে ঠাকুরগাঁও জেলার পীরগঞ্জ উপজেলা, ওপারে দিনাজপুর জেলার বোচাগঞ্জ উপজেলা এই ২ উপজেলায় যাতায়াত করে ৫০ হাজার লোকজনের একমাত্র ভরসা।

খোঁজ নিয়ে জানা যায়, ঐ এলাকার সাগরাম ও মাইকেলের উদ্যোগে প্রায় ১ হাজার ফুট লম্বা ঝুঁকিপূর্ণ বাঁশের সাঁকো দিয়ে চলাচল করছে স্কুলপড়ুয়া শিক্ষার্থী, কৃষক, ব্যবসায়ী সহ ২ উপজেলার প্রায় পঞ্চাশ হাজার মানুষ। আসা যাওয়ার জন্য এ সাঁকোটিই একমাত্র ভরসা। বাঁশের সাঁকোর ওপর দিয়ে কৃষি পণ্য পরিবহন ও অন্যান্য ভারী যানবাহন চলাচলের উপযোগী না হওয়ায় ঐ এলাকার কৃষকরা তাদের উৎপাদিত কৃষিপণ্য সহজভাবে বাজারজাত করতে পারছে না। অপরদিকে, দুর্ভোগের কারণে বিভিন্ন সুযোগ সুবিধা থেকে বঞ্চিত এলাকার মানুষ।

সরেজমিনে গিয়ে দেখা যায়, বাঁশের সাঁকোর উদ্যোক্তা সাগরাম ও মাইকেল সহ বেশ কয়েকজন স্থানীয় মাতব্বর বাঁশের সাঁকো দিয়ে পারাপারের জন্য প্রতিজনের কাছ থেকে ১০ টাকা এবং বাইসাইকেল-মোটরসাইকেল পারাপারে জন্য ১৫-২০ টাকা নিচ্ছেন। এ যেন এক নীরব চাঁদাবাজি। এ বিষয়ে প্রতিবাদ করলে নানাভাবে হেনস্তার শিকার হতে হয় এলাকাবাসীদের। তাছাড়া ঐ ঘাটের পূর্বপার্শ্বে প্রতিবছরই বান্নিস্নান মহোৎসবের আয়োজন করা হয়। ২ উপজেলার হাজার হাজার হিন্দুধর্মাবলম্বী ভক্তরা মহোৎসব পালন করতে আসেন সেখানে। কিন্তু পীরগঞ্জ উপজেলায় এপারে বাঁশের সাঁকোর ব্যবস্থা থাকলেও ওপারে বোচাগঞ্জ উপজেলায় বাঁশের সাঁকোর ব্যবস্থা না থাকায় সেখানে হাঁটুপানি ভেঙে যাতায়াত করতে হয়। ফলে ঐ সব এলাকার লোকজনের দুর্ভোগের যেন শেষ নেই। এলাকাবাসীর দাবি, একটি স্থায়ী ব্রিজ নির্মাণের। ব্রিজটি নির্মিত হলে ২ উপজেলার হাজার হাজার মানুষের ভোগান্তি কমবে।

সোহাগ আলী বলেন, প্রধানমন্ত্রী বলেছেন দেশের সব জায়গায় উন্নয়ণ হয়েছে,উন্নয়নের ছোয়া লাগেনি এমন কোন জায়গা নেই,কিন্তু আমাদের তো এখানে উন্নয়নের ছোয়া লাগেনি৷আমি মাননীয় প্রধানমন্ত্রীকে অনুরোধ করছি উনি যেন আমাদের এই ব্রীজটি করে দেন৷এতে হাজার হাজার মানুষ উপকৃত হবে ৷

এ বিষয়ে স্থানীয় জাবরহাট ইউপি চেয়ারম্যান মো. হুমায়ুন কবীর জানান, ভরা বর্ষা মৌসুমে নৌকা দিয়ে যাতায়াত করে ২ উপজেলার মানুষ। নদীর আতাই ঘাটে সরকারি অর্থায়নে একটি ব্রিজ নির্মাণ করা প্রয়োজন। এটা হলে ২ উপজেলার মানুষের যাতায়াতে সুবিধার পাশাপাশি এলাকার ব্যাপক উন্নয়ন ঘটবে।

 

 

‘বিদ্রঃ সমকালনিউজ২৪.কম একটি স্বাধীন অনলাইন পত্রিকা। সমকালনিউজ২৪.কম এর সাথে দৈনিক সমকাল এর কোন সম্পর্ক নেই।’

প্রতিদিনের খবর পড়ুন আপনার ইমেইল থেকে
ঠাকুরগাঁও বিভাগের সর্বশেষ
ঠাকুরগাঁও বিভাগের আলোচিত
ওপরে