২১শে মে, ২০১৯ ইং ৭ই জ্যৈষ্ঠ, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ

samakalnew24
samakalnew24
শিরোনাম:
যাকাত দিলে সম্পদ বাড়ে ! ব্রীজ মেরামতে সময় ক্ষেপন তালতলী উপজেলা সদরের সাথে সারা... জামালপুরের দেওয়ারগঞ্জ পৌর মেয়রের বিরুদ্ধে মামলার... বগুড়ায় গ্যাস ট্যাবলেট সেবনে কাকি ভাতিজা আত্মহত্যা ! বরগুনায় বশতঘর নির্মানে বাধা” ৩ লক্ষ্য টাকা চাদাঁদাবীর...

ভারতে ফেরত পাঠানোর আগে বেদম পেটানো হয় অভিনন্দনকে!

 আন্তর্জাতিক ডেস্কঃ সমকাল নিউজ ২৪
ভারতে ফেরত পাঠানোর আগে বেদম পেটানো হয় অভিনন্দনকে!

আপনার সঙ্গে কেমন ব্যবহার করেছে পাকিস্তান? পাক প্রকাশিত ভিডিওতে বিমান সেনা অভিনন্দন বর্তমানকে বলতে শোনা যায়, আমার সঙ্গে খুব ভালো ব্যবহার করা হয়েছে। কিন্তু এবার বেরিয়ে এলা অন্য খবর। কোনও ভালো ব্যবহার নয়, অভিনন্দনকে মারধর করেছে পাক সেনা সামনে উপস্থিত থেকেই। এমনকি সেখানে উপস্থিত ছিলেন পাক সেনার এক মেজরও।

পাকিস্তানের সাধারণ মানুষের হাতে পড়ার প্রথম থেকে শেষ পর্যন্ত পুরো ঘটনায় উপস্থিত ছিল পাকিস্তানের সেনা। তারা দাঁড়িয়ে থেকে মারধর করায় এবং তারপর ভিডিও করে জোর করে ভারতীয় পাইলটকে বলিয়ে নেয় যে, তার সঙ্গে পাকিস্তান ভালো ব্যবহার করেছে। পাক সংবাদমাধ্যমকে দেওয়া স্থানীয় পাক ব্যক্তির বক্তব্য সেই কথাই প্রমাণ করছে।

সামা টিভি নামক পাক সংবাদমাধ্যমকে পাকিস্তানের সিন্ধার এলাকার ওই স্থানীয় ব্যক্তি বলেছেন, ‘আমি তখন কাজের জন্য বাড়ি থেকে বেরোচ্ছিলাম। তখনই দেখি বড় বিমান বা এমন কিছু একটা কিছুতে আগুন লাগা অবস্থায় পড়ে রয়েছে। দেখি যে প্যরাস্যুটে করে একজন নামছে। আমি গাড়ি ঘুরিয়ে সেখানে যাই।’

এরপরেই তিনি বলেন, ‘আমাদের সেনার কাছে খবর ছিল আমাদের বাড়ির এলাকায় কোনও একটা প্যরাশ্যুট পড়েছে। কিন্তু ওরা বুঝতে পারছিল না ঠিক কোন জায়গায় সেটা রয়েছে। আমি ওদেরকে আমাদের গাড়ি্তে বসিয়ে নিয়ে যাই সেখানে।’

এরপরে তিনি বলেছেন, ‘আমরা যখন ওখানে পৌঁছাই তখন দেখি যে ওই বিমানের পাইলট এলাকারই একটি সরু নালার উপর দিয়ে হেঁটে যাচ্ছে। আমি পাক সেনার মেজর এবং আরও কিছু সেনাকে নিয়ে ওর পিছনে ধাওয়া করি। এরপরেই ওই পাইলট আমাদের উপর দুবার ফায়ার করে। তবে আমাদের কারোও সেই গুলি লাগেনি। আমরা ফের ওর পিছনে ধাওয়া করি। দেখি যে ও ছুটে একটা নদীর পানিতে ঝাঁপ দিয়ে দিল। আমি ওকে ধরার চেষ্টা করি। কিন্তু পারিনি।

তারপরে আবার একবার ও আমার উপর গুলি চালানোর চেষ্টা করে। বাধ্য হয়ে তখন আমি ছোট্ট নদীর ধার থেকে পাথর তুলে ওর দিকে ছুঁড়ে মারি। একটা ওর পায়ে লাগে আর একটা ওর মাথার পাশ দিয়ে বেড়িয়ে যায়। তখন ও আমাকে দূর থেকেই বলে যা তাকে যেন পাথর না মারা হয়।’ এরপরে সে ওই সংবাদমাধ্যমকে বলেছে, ‘এই যে পুরো ঘটনা ঘটছিল তখন আমার সঙ্গে পাক সেনার মেজর এবং আরও কয়েকজন জওয়ান ছিল।’ অর্থাত্‍ পাক সেনার সামনে থেকে পুরো ঘটনাটি ঘটতে দিয়েছে তা স্পষ্ট।

মিগ বিমানের পাইলটকে সাধারণ মানুষের হাতে ছেড়ে রেখে তারা অভিনন্দনকে মার খেতে দিয়েছে। তারপর চোখে ধুলো দেওয়ার জন্য তাকে দিয়ে জোর করে মিথ্যা বলায়, যে তার সঙ্গে পাক সেনা খুব ভালো ব্যবহার করেছে। যা মিথ্যা বলে দাবী করছে ভারতীয় মিডিয়া।

Print Friendly, PDF & Email

প্রতিদিনের খবর পড়ুন আপনার ইমেইল থেকে
আন্তর্জাতিক বিভাগের আলোচিত
ওপরে