২৫শে মার্চ, ২০১৯ ইং ১১ই চৈত্র, ১৪২৫ বঙ্গাব্দ

samakalnew24
samakalnew24
শিরোনাম:
ঠাকুরগাঁওয়ে ভুল অপারেশনে প্রাণ গেল তৃতীয় শ্রেণীর... স্বাধীনতা যুদ্ধে বীর শহীদের স্বরনে মোংলা ইপিজেড কর্তৃক... ডিনস এ্যাওয়ার্ড পেলেন রাবির দুই শিক্ষক রাবিতে পাঁচ দিনব্যাপী শিল্পকর্ম প্রদর্শনী শুরু যশোরের বেনাপোল সীমান্তে ভারতীয় চাপাতা সহ আটক-১

ভালো নেই, শরীরটা ভালো যাচ্ছে না : খালেদা জিয়া

 অনলাইন ডেস্কঃ সমকাল নিউজ ২৪
ভালো নেই, শরীরটা ভালো যাচ্ছে না : খালেদা জিয়া

জিয়া চ্যারিটেবল ট্রাস্ট দুর্নীতি মামলা সাজাপ্রাপ্ত হয়ে এক বছরেরও বেশি সময় ধরে কারাগারে বন্দি বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়া। রবিবার দুর্নীতির আরেক মামলায় হাজিরা দেয়ার জন্য তাকে কারাগার থেকে হুইল চেয়ারে কারা আদালতে হাজির করে কারা কর্তৃপক্ষ। এজলাসে প্রবেশের সময় বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর ও দুদকের কৌঁসুলি মোশাররফ হোসেন কাজল তাকে সালাম দেন। এ সময় তারা খালেদা জিয়াকে জিজ্ঞাসা করেন ম্যাডাম কেমন আছেন। উত্তরে খালেদা জিয়া বলেন, ভালো নেই। শরীরটা ভালো যাচ্ছে না।

এদিন দুপুর সাড়ে ১২টায় পুরান ঢাকার নাজিমউদ্দিন রোডে অবস্থিত পুরনো কেন্দ্রীয় কারাগারে স্থাপিত ঢাকার ৯ নং বিশেষ জজ শেখ হাফিজুর রহমানের আদালতে তাকে হাজির করা হয়। শুনানি শেষে বেলা ১টা ৫০ মিনিটে আবারও কারাগারে নিয়ে যাওয়া হয়। দুর্নীতি মামলায় সাজাপ্রাপ্ত হওয়ার পর থেকে এই কারাগারেই তিনি বন্দি।

এদিন ১২টা ৩৫ মিনিটে বিচারক এজলাসে ওঠেন। এ সময় মামলার আসামি জ্বালানি ও খনিজ সম্পদ মন্ত্রণালয়ের সাবেক ভারপ্রাপ্ত সচিব খন্দকার শহীদুল ইসলামের পক্ষে তার আইনজীবী আসাদুজ্জামান অভিযোগের শুনানি করেন। তারপর সাবেক জ্বালানি প্রতিমন্ত্রী এ কে এম মোশাররফ হোসেনের পক্ষে তার আইনজীবী অভিযোগ গঠন শুনানি করেন। তারা দুজন শুনানি শেষে বলেন, মামলাটি চলতে পারে না।

এরপর মামলার আসামি বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য মওদুদ আহমদ আইনি পয়েন্টে তিনটি যুক্তি উপস্থাপন করেন। তিনি বলেন, মামলায় আমার বিষয়ে কোনো কিছু নেই। নেই কোনো দলিল, সাক্ষী বা কোনো কাগজ। আমি মন্ত্রণালয়ের দায়িত্ব থাকাকালে শুধু মতামত দিয়েছি, যা সব সরকারের আমলে দেয়া হয়। খালেদা জিয়াও নিয়ম অনুযায়ী স্বাক্ষর দিয়েছেন। আগের প্রধানমন্ত্রীর জ্বালানি সচিবও এ কাজ করেছেন, যা চার্জশিট দেখে প্রতীয়মান হয়। খালেদা জিয়াসহ সব আসামির অব্যাহতি চাচ্ছি।

মওদুদের শুনানি শেষে বিচারক বলেন, আপনাদের অন্য দরখাস্তের বিষয়ে বলেন। তখন খালেদা জিয়ার আইনজীবী মাসুদ আহম্মেদ তালুকদার বলেন, আমরা খালেদা জিয়ার সুচিকিৎসার বিষয়ে একটি আবেদন করেছি। আদালত এ বিষয় কোনো আদেশ এখনো দেননি। গত ২৪ ফেব্রুয়ারি পাঁচ সদস্যের একটি মেডিকেল টিম খালেদা জিয়াকে দেখেন। তারপর দিন খালেদা জিয়ার সুচিকিৎসার প্রয়োজন মর্মে একটি প্রতিবেদন দিয়েছেন।

Print Friendly, PDF & Email

প্রতিদিনের খবর পড়ুন আপনার ইমেইল থেকে
ওপরে