৭ই এপ্রিল, ২০২০ ইং ২৪শে চৈত্র, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ

samakalnew24
samakalnew24
শিরোনাম:
করোনাভাইরাসে বার্সেলোনায় প্রথম বাংলাদেশীর মৃত্যু কোটচাঁদপুরে করোনা প্রতিরোধে নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেটের... করোনা ভাইরাস রোধকল্পে নির্দেশনা না মানায় ৫৩ জনকে... রাঙ্গাবালীর মানচিত্রে মৌডুবী নামে যুক্ত হলো একটি নতুন... বরগুনায় সরকারি নিষেধাজ্ঞা অমান্য ও হোম কোয়ারেন্টাইন না...

ভাষা আন্দোলনে শহীদদের স্মরণে বরগুনায় যেভাবে প্রতিষ্ঠিত হয় শহীদ মিনার

  সমকালনিউজ২৪

স্বপন দাস,বরগুনা প্রতিনিধি ::

মহান ভাষা আন্দোলনের শহীদদের স্মরণে বিভিন্ন সময়ে প্রতিষ্ঠিত হয় বরগুনায় কয়েকটি শহীদ মিনার। যার মধ্যে ১৯৬৮ সালে ডিসেম্বর মাসে বরগুনায় প্রথম প্রতিষ্ঠিত হয় জিলা স্কুলের শহীদ মিনার। এই শহীদ মিনার নির্মান করা হয় ব্যক্তিগত ভাবে সেচ্ছাশ্রমের মাধ্যমে। এরপর অবশ্য বিভিন ভাবে এক এক করে আরো কয়েকটি শহীদ মিনার নির্মান করা হয় বরগুনায়।

বরগুনায় তৎকালীন মুসলিম হাই স্কুল কর্তমানে জিলা স্কুলের শহীদ মিনার নির্মানে তৎকালীন স্কুলের শিক্ষক ও ছাত্ররা উদ্যোগ গ্রহন করেন।

বিশেষ ভাবে তৎকালীন সময়ে আগরতলা ষরযন্ত্র মা’মলায় করারুদ্ধ জাতির জনক ব্ঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানকে মুক্ত করার আন্দোলন ছড়িয়ে পড়লে বরগুনায়ও তার ব্যাপক প্রভাব পরে। তখন জিলা স্কুলের তৎকালীন প্রধান শিক্ষক মরহুম গাজী আলী আহম্মদের অনুপ্রেরণায় সাবেক ছাত্রনেতা আনোয়ার হোসেন মনোয়ারকে আহবায়ক করে ১১ সদস্য বিশিষ্ট শহীদ মিনার নির্মান কমিটি গঠন করা হয়। তিনি তখন জিলা স্কুলের দশম শ্রেণির ছাত্র ছিলেন। সদস্য সচিব ছিলেন তৎকালীন ছাত্রনেতা এসএম নজরুর ইসলাম।

ওই কমিটিতে উল্লেখযোগ্য সদস্য ছিলেন, সাবেক ছাত্রনেতা সাবেক সংসদ সদস্য, সিাদ্দকুর রহমান, মনির মাহমুদ মোহন, সাবেক পৌর মেয়র এ্যাভোকেট মো. শাহজাহান, প্রায়ত মুক্তিযোদ্ধা দিলীপ সাহা, মুক্তিযোদ্ধা সুখ রঞ্জন শীল, সাবেক ছাত্র মরহুম মোখলেছুর রহমান, সাবেক ছাত্র রফিকুল ইসলাম প্রমুখ। তারা স্কুলের টিফিনের টাকা, বিশিস্ট ব্যাক্তিদের অনুদান সংগ্রহ করে সেচ্ছাশ্রম দিয়ে জিলা স্কুলের শহীদ মিনার তৈরি করেন। প্রথম দিকে বরগুনায় এটাই ছিল বরগুনার কেন্দ্রীয় শহীদ মিনার।

অবশ্য পরে ১৯৯৩ সালে বরগুনা-১ আসনের সংসদ সদস্য এ্যাভোকেট ধীরেন্দ্র দেবনাথ শম্ভু’এর প্রেরণায় সাবেক পৌর মেয়র এ্যাভোকেট মো. শাহজাহান বরগুনা টাউন হল মাঠে বরগুনার কেন্দ্রীয় শহীদ মিনার নির্মানের উদ্ব্যোগ গ্রহন করেন। এই শহীদ মিনার নির্মানে বরগুনা জেলা শাখা বঙ্গবন্ধু সাংস্কৃতিক জোটের তৎকালীন সভাপতি মরহুম এ্যাভোকেট আবুল কালাম আজাদ, উদীচী শিল্পী গোষ্ঠি বরগুনা জেলা শাখার সাবেক সাধারণ সম্পাদক মরহুম এ্যাভোকেট হাবিবুর রহমান, তৎকালীন শিল্পকলা একাডেমীর সাধারণ সম্পাদক চিত্ত রঞ্জন শীল বিভিন্ন ভাবে সহযোগিতা করেন।

এই শহীদ মিনার নির্মান কাজ উদ্বোধন করেন তৎকালী জেলা প্রশাসক তোফাজ্জেল হোসেন। এর পর পর্যায়ক্রমে বরগুনার অন্যান্য স্থানে আরো অনেক গুলো শহীদ মিনার প্রতিষ্ঠা করা হয়।

প্রতিদিনের খবর পড়ুন আপনার ইমেইল থেকে
বরগুনা বিভাগের সর্বশেষ
বরগুনা বিভাগের আলোচিত
ওপরে