২৬শে মে, ২০১৯ ইং ১২ই জ্যৈষ্ঠ, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ

samakalnew24
samakalnew24
শিরোনাম:
শাহমীরপুর ফাঁড়ির অভিযানে ওয়ারেন্ট ভুক্ত দুই আসামী... “কয়েক ঘন্টায় প্রায় ৮ হাজার কেজি ডিম সংগ্রহ” হালদা... সাজাপ্রাপ্ত আসামীকে গ্রেপ্তার করেছে বেনাপোল পোর্ট... ফেসবুকের কাছে ১৯৫টি অ্যাকাউন্টের তথ্য চেয়েছে সরকার সদরঘাট জিম্মি ‘খলিফা বাহিনী’র হাতে

ভূল চিকিৎসায় রোগীর মৃত্যু, ডাক্তার পালাতক।

 মোঃ সাইদুল ইসলাম,রাজাপুর, ঝালকাঠি। সমকাল নিউজ ২৪

ঝালকাঠির রাজাপুরে পল্লী চিকিৎসকের ভূল চিকিৎসায় সালমা বেগম (৩৫) নামে ৩ সন্তানের জননীর মৃত্যু হয়েছে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে। মঙ্গলবার সকাল ১০ টায় উপজেলার গালুয়া ইউনিয়নের খায়েরহাট বাজারে সাইমা মেডিকেল হলে এ ঘটনা ঘটে। ডাক্তার মুহসিন উদ্দিন ও ফার্মিসি মালিক সজিব ঘটনার পর থেকে পালাতক রয়েছে। সালমা বেগম উপজেলার পুটিয়াখালী এলাকার কৃষক মোঃ দেলোয়ার হোসেনের স্ত্রী। মৃতের স্বামী মোঃ দেলোয়ার ও স্থানীয়রা জানায়, তার ৯ মাসের সন্তান বুকের দুধ পান করতে করতে স্তনে ক্ষত হয় এবং খুব ব্যাথা অনুভব হয়। দেলোয়ার সোমবার রাত সাড়ে ৮টায় স্থানীয় সাইমা মেডিকেল হলের প্রোপাইটর মোঃ সজিব খান এর কাছে ঐ ক্ষতের ব্যাপারে জানায়। সজিব তাৎক্ষনিক তার চেম্বারে আসা ডাক্তার মুহসীন উদ্দিন (নাঈম) এর সাথে মুঠোফোনে কথা বলে ঔষধ দেয় এবং মঙ্গলবার সকালে রোগীকে ডাক্তারের কাছে আসার পরামর্শ দেন। সজিবের পরামর্শ মতে রোগী সালমা নিজে একা বাড়ি থেকে হেটে মঙ্গলবার সকাল ১০ টায় ডাক্তার মুহসিন উদ্দিনের কাছে আছে। ডাক্তার সালমার হাতে  ২ম ইঞ্জেকশন পুস করা শুরু করে এবং ২/৩ সিসি পুস করার সাথে সাথে সালমা ছটফট করতে শুরু করে। ডাক্তার ও সজিব সালমার পরিবারকে খবর দিয়ে সালমাকে রাজাপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে পাঠিয়ে দেয়। পথি মধ্যে সালমার মৃত্যু হয়।

রাজাপুর থানা পুলিশ ঘটনা স্থল পরিদর্শন করেছে। রাজাপুর স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের আবাসিক মেডিকেল অফিসার আবুল খায়ের রাসেল জানান, সকাল সাড়ে ১১ টায় সালমাকে আমাদের কাছে মৃত অবস্থায় নিয়ে আসে। সালমাকে যে ইনজেকশন পুস করা হয়েছে তাতে তার মৃত্যু হবার কথা নয়। তবে প্রাথমিক ভাবে ধারনা করেন দ্রুত ইনজেকশন পুস করার কারনে তার মৃত্যু হতে পারে।

রাজাপুর থানা অফিসার ইনচার্জ মোঃ জাহিদ হোসেন জানান, পরিবারের পক্ষ থেকে কোন লিখিত অভিযোগ না থাকায় আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহন করা যাচ্ছে না।

Print Friendly, PDF & Email

প্রতিদিনের খবর পড়ুন আপনার ইমেইল থেকে
ওপরে