২৩শে মার্চ, ২০১৯ ইং ৯ই চৈত্র, ১৪২৫ বঙ্গাব্দ

samakalnew24
samakalnew24
শিরোনাম:
আমতলীর মরাজান খালের ব্রীজটি এখন মরণ ফাঁদ প্রধানমন্ত্রীকে ডাকসু ভিপি নূরের প্রথম উপহার ১২ বছরের ছাত্রকে দিয়ে চাহিদা মেটাতেন শিক্ষিকা জাপার নতুন যুগ্ম-মহাসচিব হাসিবুল ইসলাম জয় ওবায়দুল কাদের এখন শারীরিকভাবে সম্পূর্ণ সুস্থ

ভোলার হাসান নগরে বেহাল ব্রিজের করুণ দশায় আতঙ্কের দিন গুণছে মানুষ: দেখার নেই কেউই !!

 বোরহানউদ্দিন, ভোলা প্রতিনিধিঃ সমকাল নিউজ ২৪

দ্বীপময় জেলা ভোলার বোরহানউদ্দিন উপজেলার বৃহত্তর ০৬ নং হাসান নগর ইউপির ০৭নং ওয়ার্ড এর (কাজীরহাট) বাজারের উত্তর-পশ্চিম ও ০৭ নং টবগী ইউপির ০৬নং ওয়ার্ডের পূর্বের শেষ মাথার মাঝখান দিয়ে বয়ে যাওয়া খালটির উপর প্রায় দুই যুগ আগে নির্মিত পুরনো এ’ বেইলি ব্রিজটি ঝুঁকিপূর্ণ হয়ে পড়েছে। ব্রিজটি এখন যেনো মরণের এক ফাঁদ হয়ে দাঁড়িয়েছে। যে কোনো সময়’ই বড় ধরণের দুর্ঘটনার আশঙ্কা রয়েছে।

সরজমিন পরিদর্শনে গিয়ে দেখা যায়, ব্রিজটি সংস্কারের অভাবে দীর্ঘদিন যাবৎ ঝুঁকিপূর্ণ অবস্থায় পড়ে আছে। ঝুঁকিপূর্ণ এ’ বেইলী ব্রিজ দিয়ে প্রতিনিয়তই যাতায়াত করছে উপজেলার টবগী ও হাসান নগর ইউনিয়নের জনসাধারণ, চলাচল করছে শত শত যানবাহন। কিছুদিন পর পর জোড়া দিলেও তা বেশিদিন টিকে না। ব্রিজটি কয়েকবার মেরামত করলেও পুনঃনির্মাণের আশ্বাস বাস্তবায়ন হয়নি দীর্ঘদিনেও। ব্রিজের বেশিরভাগ স্থানের’ই ষ্টিলের পাটাতন সরে গেছে। ফলে প্রায় প্রতিনিয়ত ছোটখাটো দুর্ঘটনার শিকার হচ্ছে যানবাহনসহ যাত্রীরা। প্রতিদিন দুই একটি ছোট বড় দুর্ঘটনা ঘটেই চলেছে।

এ সড়কে প্রতিদিন যে অধিক সংখ্যক মাল বোঝাই ট্রাক, যাত্রীবাহী টেম্পু, রিকসা, অটো মোটরযানসহ ভারি যানবাহন চলাচল করছে তাতে যে কোনো মুহুর্তে বড় ধরনের দুর্ঘটনা ঘটতে পারে।

স্থানীয়রা সমকাল নিউজ ২৪ ডট কমকে জানায়, এই ব্রিজটি দীর্ঘ (২০) বছর আগে নির্মাণ করা হয়েছিল। কিন্তু অদ্যাবধি এই ঝুঁকিপূর্ণ ব্রিজটির কোনো সংস্কার করা হয়নি এবং বর্তমানে ব্রিজটি আমাদের জন্য মরণ ফাঁদ হয়ে দাঁড়িয়ে আছে। যেকোনো মুহূর্তে বড় ধরনের দুর্ঘটনা ঘটতে পারে।

তারা আরো জানায়, এই ব্রিজ দিয়ে যান চলাচলসহ প্রতিদিন স্কুল, কলেজ, মাদ্রাসার ছাত্র/ছাত্রী ও বাজারের ব্যবসায়ী এবং ক্রেতা-বিক্রেতারা ঝুঁকি নিয়ে যাতায়াত করতে হয়। ব্রিজটি নির্মাণে সংশ্নিষ্ট কর্তৃপক্ষ/মন্ত্রণালয়ের নজর দেয়া একান্ত জরুরি হয়ে পড়েছে।

এ ব্যাপারে এলাকার রিকসা চালকরা ও হারুন মিকার বলেন, সরকারি কোনো অনুদান না পাওয়ায় আমরা নিজেদের উদ্বেগে’ই প্রায় ২৫-৩০ হাজার টাকা ব্যয় করে গতবছর ব্রিজটি মেরামত করি।

এ ব্যাপারে ০৬নং হাসান নগর ইউনিয়ন ৭নং ওয়ার্ডের সফল ইউপি সদস্য ও প্যানেল চেয়ারম্যান জনাব মোফাজ্জল হোসেন কে জিজ্ঞেস করলে তিনি বলেন, এ ব্যাপারে আমার কাছে কোনো তথ্য নেই। তবে, এলাকাবাসী জরুরি ভিত্তিতে ব্রিজ’টি

মেরামত করার জন্য সংশ্নিষ্ট কর্তৃপক্ষ/মন্ত্রণালয়ের দৃষ্টি কামনা করেছে। তাই বিকল্প ব্রীজ নির্মাণে স্থানীয়দের রয়েছে দীর্ঘদিনের প্রাণের দাবী।

Print Friendly, PDF & Email

প্রতিদিনের খবর পড়ুন আপনার ইমেইল থেকে
ওপরে