১৯শে জুন, ২০১৯ ইং ৫ই আষাঢ়, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ

samakalnew24
samakalnew24
শিরোনাম:
ঝিনাইদহে কোটচাঁদপুর যুবকের গলাকাটা মৃতদেহ উদ্ধার তালতলী উপজেলা পরিষদ নির্বাচন চেয়ারম্যান পদে... চারঘাটে বিদায় সংবর্ধনায় সিক্ত হলেন জেলা প্রশাসক শাহপরান হত্যা: শার্শা থানার স্বীকৃতি প্রাপ্ত দালাল... আওয়ামীলীগ জোর করে ক্ষমতায় এসে জনগণের উপর জুলুম শুরু...

মাঠে নামার আগে যে সংকেত দিলেন রাসেল

 অনলাইন ডেস্কঃ সমকাল নিউজ ২৪
মাঠে নামার আগে যে সংকেত দিলেন রাসেল

চিন্নাস্বামী স্টেডিয়ামে অবিশ্বাস্য ইনিংসের পরে কেকেআর শিবিরে আন্দ্রে রাসেলের নামকরণ হল ‘বাহুবলী’। জ্যামাইকান অলরাউন্ডারের এই নামকরণ খোদ দলের মালিক শাহরুখ খান।

রাত পেরিয়েছে। বেঙ্গালুরু থেকে জয়পুর পৌঁছে গিয়েছে টিম কেকেআর। কিন্তু রাসেল নিয়ে উন্মাদনা যেন শেষ হওয়ার নয়। বেঙ্গালুরুর চিন্নাস্বামী স্টেডিয়ামে রাসেল নামক যে ‘টর্নেডো’ আছড়ে পড়েছিল, জয়পুরের সোয়াই মানসিংহ স্টেডিয়ামে তার তেজ একই রকম থাকে কি না সেটাই দেখার।

শুক্রবার রাতেই ম্যাচ শেষ হয়ে যাওয়ার পরে তার সাক্ষাৎকার নেন সতীর্থ কার্লোস ব্রাথওয়েট। রাসেলকে জিজ্ঞাসা করেন, ‘তুমি নামার সময় তো ওভার প্রতি ১৫ রানের উপর প্রয়োজন ছিল। কী পরিকল্পনা নিয়ে ব্যাট করতে নেমেছিলে?’ রাসেলের সাফ উত্তর, ‘লক্ষ্যটা ছোট করে ব্যাট করতে নেমেছিলাম। যেমন ৬০ রান করতে হলে দশটি ছক্কা প্রয়োজন। সেটাই মাথায় ছিল। যত বেশি ছয় মারব, তত জয়ের কাছে পৌঁছে যাব।’এরপর কেক কেটে প্রিয়তম স্ত্রীকে নিয়ে বিনোদনে মেতে উঠেন ক্যারিবীয় তারকা।

রোবারও (৭ মার্চ) রাজস্থান রয়্যালসের বিপক্ষে তার পরিকল্পনার যে কোনও হেরফের হবে না, তা এখনই বলে দেওয়া যায়। পরিস্থিতি যেমনই হোক। সিঙ্গেল খেলার বদলে মাঠের বাইরে বল পাঠাতেই বেশি স্বচ্ছন্দ বোধ করেন। নেটেও এ ধরনের পরিস্থিতির জন্যই অনুশীলন করেন। কেকেআর বলেছেন, ‘জানি ম্যাচে এ ধরনের পরিস্থিতি আসতে পারে। তাই নেটে প্রথম বল থেকে মারতে শুরু করি। ম্যাচেও তার বেশি হেরফের হয় না। আজকের ম্যাচে এই ছন্দই ধরে রাখতে চাই।’

রাসেলের ব্যাট চলতে শুরু করলে, যে কোনও মাঠই ছোট মনে হয়। কোনও বিশেষ ক্রিকেটার ছাড়া এভাবে হয়তো খেলা সম্ভব না। রাসেল নিজেও জানেন তিনি বিশেষ ক্রিকেটার। বলছিলেন, ‘আমি বিশেষ ক্রিকেটার হলেও তা নিয়ে বাড়তি উচ্ছ্বাস দেখানোর প্রয়োজন বোধ করি না। শান্ত থেকে আগামী ম্যাচের জন্য প্রস্তুত হই। আগের ম্যাচে কী করেছি, তা নিয়ে খুব একটা ভাবি না। প্রত্যেক দিনই নতুন চ্যালেঞ্জ অপেক্ষা করে থাকে। আগামী ম্যাচেও এ ধরনের পরিস্থিতি আসতে পারে। কিন্তু আমার পরিকল্পনা বদলাবে না। যেমন ছয় মারতে ভালবাসি, তেমনই চালিয়ে যাওয়ার চেষ্টা করব।’

বুঝতে আর বাকি রইল না সংকেতটা তিনি দিয়েছেন রাজস্থানকে। এখন দেখের রাসেলকে থামাাতে কেমন প্রস্তুতি নেয় রাজস্থান।

Print Friendly, PDF & Email

প্রতিদিনের খবর পড়ুন আপনার ইমেইল থেকে
ওপরে