২৬শে মে, ২০১৯ ইং ১২ই জ্যৈষ্ঠ, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ

samakalnew24
samakalnew24
শিরোনাম:
সদরঘাট জিম্মি ‘খলিফা বাহিনী’র হাতে কৃষকের ঘরে বিয়ের ১১ বছর পর এক সঙ্গে চার সন্তান বাংলাদেশীদের পদচারণায় জমজমাট কলকাতার ঈদ বাজার! স্বামী সন্তানের বিরুদ্ধে মিথ্যা মামলা প্রত্যাহারের... হঠাৎ কোটিপতি হয়ে যাওয়া এক নেতা

মানবাধিকার কর্মী পরিচয়ে চাঁদা দাবীকালে ৩ যুবক আটক! মামলা, জামিন না মঞ্জুর

 মোঃ সাইদুল ইসলাম, রাজাপুর প্রতিনিধিঃ সমকাল নিউজ ২৪

ঝালকাঠির রাজাপুরে মানবাধিকার কর্মী ও সাংবাদিক পরিচয়ে চাঁদা দাবি করায় আটক তিন যুবককে আদালতে প্রেরণ করেছে থানা পুলিশ। আটক হওয়া ব্যক্তিরা হলেন, স্বরূপকাঠির জলাবাড়ী এলাকার নীধির ঘোষের ছেলে নির্মল ঘোষ কাজল, হিজলার মৃত দলিল উদ্দিনের ছেলে শাহাবুদ্দিন ও বরিশালের টিয়াখালী এলাকার গৌরঙ্গ হালদারের ছেলে রিপন হালদার। জানা যায়, শনিবার দুপুরে উপজেলা সদরের বাজার এলাকার অনুপ বেকারী নামক ব্যবসা প্রতিষ্ঠানে দুপুর ১টার দিকে উপজেলা সদরের বাজার এলাকার অনুপ বেকারিতে গিয়ে বিএসটিআই’র কাগজপত্র ও বেকারির কারখানা দেখতে চান তারা। কাগজপত্র দেখার পর কারখানা পরিদর্শন শেষে বিভিন্ন অজুহাত করে বেকারির মালিক অনুপ মজুমদারের কাছে চাঁদা দাবি করেন। চাঁদা না দিলে বেকারির বিরুদ্ধে রিপোর্ট করার হুমকি দেন।

তাদের কথাবার্তায় সন্দেহ হলে বেকারির মালিক অনুপ রাজাপুর প্রেস ক্লাবের সাধারণ সম্পাদক শামসুল আলমকে বিষয়টি জানান। শামসুল আলম স্থানীয় সংবাদকর্মীদের বিষয়টি অবহিত করলে তারা ঘটনাস্থলে গিয়ে স্থানীয়দের সহায়তায় অভিযুক্তদের আটক করে থানায় সোপর্দ করেন।

এরপর সন্ধ্যায় তাদেরকে থানা থেকে ছাড়িয়ে নিতে ‘বরিশাল ক্রাইম’ নামক একটি আঞ্চলিক পত্রিকার দুইজন সম্পাদক থানায় উপস্থিত হন। তাদের মধ্যে পত্রিকার মালিকানা নিয়ে ওসির কক্ষেই মতবিরোধ দেখা দেয়।

পরে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা আফরোজা বেগম পারুল থানায় এসে উভয় পক্ষের বক্তব্য শুনে অভিযুক্ত তিন ব্যক্তির বিরুদ্ধে চাঁদা দাবির অভিযোগে বেকারি মালিক অনুপকে মামলা করার পরামর্শ দেন।

বেকারি মালিক অনুপ মজুমদার বলেন, এই তিনজন বেকারির কাগজপত্র দেখার পর কারখানা দেখতে চাইলে তাদের কারখানায় নিয়ে যাই। পরে তারা নানা অজুহাতে চাঁদা দাবি করেন। তাদের কথাবার্তায় সন্দেহ হলে স্থানীয় সাংবাদিকদের বিষয়টি জানাই।

রাজাপুর থানার ওসি মো. জাহিদ হোসেন বলেন, ‘জিজ্ঞাসাবাদে আটক তিনজনের একজন পেশায় ইলেট্রিশিয়ান, একজন ছাত্র ও অপরজন নিজেকে বেকার বলে দাবি করেছেন। তারা গত এক মাস আগে এই পত্রিকার সঙ্গে যুক্ত হয়েছেন।

এ ঘটনায় বেকারী মালিক অনুপ মজুমদার বাদী হয়ে রাতে মামলা (নং-১৯, তারিখ-২৩-০২-১৯ইং) দায়ের করেছেন।

আসামীদের প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদ শেষে রোববার সকালে আদালতে প্রেরণ করা হয়েছে বলে জানান ওসি জাহিদ। ’ আদালতে আসামীদের হাজির করা হলে আদালতের বিচারক সেলিম রেজা তাঁদের জামিন না মঞ্জুর করে কারাগারে প্রেরণের নির্দেশ দেয় বলে আদালতের একটি নির্ভরযোগ্য সূত্র নিশ্চিত করেছেন।

Print Friendly, PDF & Email

প্রতিদিনের খবর পড়ুন আপনার ইমেইল থেকে
ওপরে