১৬ই সেপ্টেম্বর, ২০১৯ ইং ১লা আশ্বিন, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ

samakalnew24
samakalnew24
শিরোনাম:
ঝালকাঠিতে পাওনা টাকাকে কেন্দ্র করে হা’মলায় আহত... অ’পহরণের ৫ দিন পর ঠাকুরগাঁও থেকে তরুণীকে উ’দ্ধার বঙ্গবন্ধু গোল্ডকাপ ফুটবল টুর্ণামেন্ট... র‌্যাবের অ’ভিযানে ২৫৬০ পিস ই’য়াবাসহ ব্যবসায়ী... দুর্গাপুরে হা-ডু-ডু প্রতিযোগিতা

মাহমুদউল্লাহ-সৌম্যর সেঞ্চুরির পরও ইনিংস হার

 খেলাধুলা ডেস্কঃ সমকালনিউজ২৪
মাহমুদউল্লাহ-সৌম্যর সেঞ্চুরির পরও ইনিংস হার

অধিনায়ক মাহমুদউল্লাহ ও সৌম্য সরকারের দারুণ প্রতিরোধেও ইনিংস হার এড়ানো গেল না। নিউজিল্যান্ডের রানের পাহাড়ের নিচে চাপা পড়েই গেল বাংলাদেশ। যাদিও সৌম্য-মাহমুদউল্লাহর ব্যাটে রোববার কিছুটা প্রতিরোধের গল্প লেখা হয়েছিল। কিন্তু তা যথেষ্ট হল না। হ্যামিল্টনে সিরিজের প্রথম টেস্টটি ইনিংস ও ৫২ রানে জিতে নিল স্বাগতিকরা।

নতুন বলই কাল হল বাংলাদেশের। চতুর্থ দিন ইনিংসের ৮১তম ওভারে নিউজিল্যান্ডের হাতে নতুন বল তুলে দেন আম্পায়ার। আর সেই বল হাতে আগুন ঝরান ট্রেন্ট বোল্ট। দুর্দান্ত খেলতে থাকা সৌম্য সরকারকে ফিরিয়ে দিয়ে ধস নামান বাংলাদেশের ইনিংসে।

হ্যামিল্টন টেস্টের তৃতীয় দিন ইনিংস হারের শঙ্কা নিয়েই শেষ করেছিল বাংলাদেশ। নিউজিল্যান্ডের ৭১৫ রানের বিপরীতে নিজেদের দ্বিতীয় ইনিংসে ১৭৪ রান করতেই ৪ উইকেট হারিয়ে ফেলেছিল তারা।

তবে চতুর্থ দিন ভিন্ন গল্পই লিখতে চাইলেন অপরাজিত থাকা দুই টাইগার ব্যাটসম্যান সৌম্য ও মাহমুদউল্লাহ। এদিন এই দুই ব্যাটসম্যানের দারুণ প্রতিরোধের মুখে পড়ে কিউই বোলাররা। দুইজন মিলে ২৩৫ রানের জুটি গড়েন। এক সময় তো মনে হচ্ছিল ইনিংস হারের শঙ্কা কাটিয়ে দারুণভাবে ম্যাচে ফিরছে বাংলাদেশ।

সৌম্য ও মাহমুদউল্লাহ ভালোভাবেই সামাল দিচ্ছিলেন স্বাগতিক বোলারদের। এর ফাঁকে ক্যারিয়ারের প্রথম টেস্ট সেঞ্চুরি তুলে নেন সৌম্য। দীর্ঘদিন পর রানে ফিরে সমালোচনার জবাবও দেন এই বাঁহাতি ব্যাটসম্যান। সেঞ্চুরি করতে মাত্র ৯৪ বল খরচ করেন তিনি। তারপর অবশ্য একটু সাবধানী হয়ে যান। অপরপ্রান্তে মাহমুদউল্লাহও দারুণ প্রতিরোধে এগিয়ে যান।

কিন্তু বিপত্তি বাধে ম্যাচের ৮১তম ওভারে এসে। নতুন বল পেয়ে যেন স্বরূপে আবির্ভুত হন বোল্ট। তার একটি লেঙথের বল ফ্লিক করতে গিয়ে ব্যর্থ হলে বোল্ড হয়ে যান সৌম্য। ফলে ১৪৯ রানে থেমে যায় তার ইনিংসটি। ১৭১ বল খেলে ৫টি ছক্কা ও ২১টি চার মারেন তিনি।

এরপর লিটন দাস (১) ও আবু জায়েদ রাহীকেও (১) বোল্ড করেন বোল্ট। মাঝে মেহেদী হাসান মিরাজের (৩) উইকেটটি তুলে নেন নিল ওয়াগনার।

এরপরও লড়াই চালিয়ে যেতে থাকেন মাহমুদউল্লাহ। তুলে নেন ক্যারিয়ারের চতুর্থ সেঞ্চুরি। কিন্তু তিনিও হার মানেন দলীয় ৪২৯ রানে। টিম সাউদির বলে আউট হওয়ার আগে ২২৯ বলে ১৪৬ রান করেন তিনি। মেরেছেন ৩টি ছক্কা ও ২১টি চার। বাংলাদেশের শেষ ব্যাটসম্যান হিসেবে আউট হন এবাদত হোসেন (০)। ফলে ৪২৯ রানেই থেমে যায় বাংলাদেশের দ্বিতীয় ইনিংস।

নিউজিল্যান্ডের হয়ে এই ইনিংসে ৫ উইকেট নিয়েছেন বোল্ট। সাউদি ৩টি ও ওয়াগনার ২ উইকেট নেন। ম্যান অব দ্য ম্যাচ হয়েছেন কেন উইলিয়ামসন।

প্রতিদিনের খবর পড়ুন আপনার ইমেইল থেকে
ওপরে