২১শে মার্চ, ২০১৯ ইং ৭ই চৈত্র, ১৪২৫ বঙ্গাব্দ

samakalnew24
samakalnew24
শিরোনাম:
সহকর্মীর গুলিতে ৩ ভারতীয় সেনা নিহত যশোরের বেনাপোল সীমান্তে ৮ লাখ টাকার ভারতীয় পন্য জব্দ আজ বিশ্ব বন দিবস আত্মবিশ্বাসকে ধারণ করে এগিয়ে যেতে হবে- চতুর্থ বরগুনা... পদ্মা সেতুর নবম স্প্যান আজ বসছে

মোংলায় সরকারী প্রতিষ্ঠানে গাছের ডালে জাতীয় পতাকা।

 মোংলা প্রতিনিধি। সমকাল নিউজ ২৪

মোংলায় আর্ন্তজাতিক মাতৃভাষা দিবসে সরকারী প্রতিষ্ঠানে জাতীয় পতাকার অবমাননা ও অবহেলা করা হয়েছে।

আর্ন্তজাতিক মাতৃভাষা ও শহিদ দিবসে জাতীয় পতাকা উত্তোলনের নিয়ম মানছেন না মোংলার সরকারী প্রতিষ্ঠান। উপজেলার সুন্দরবন ইউনিয়ন স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যান কেন্দ্রে দেড়হাত গাছের ডালে পুতে রাখা হয় মাতৃভাষার জাতীয় পতাকা। এ নিয়ে চরম ক্ষোভ দেখা দিয়েছে মুক্তিযোদ্ধা এবং স্থানীয়দের মাঝে। যুদ্ধকালীন সময়ের যুদ্ধাহত বীর মুক্তিযোদ্ধা সুন্দরবন ৯নং সাব সেক্টর কমান্ডার মোহাম্মদ জাহাঙ্গীর সর্দ্দার জানান,১৯৫২ সালে ভাষা শহিদের রক্তের বিনিময়ে আমরা জাতীয় পতাকা পেয়েছি। ৩০ লক্ষ শহিদের বিনিময় আমরা পেয়েছি স্বাধীনতা। আর মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর শেখ হাসিনার বিশেষ অবদান আজ বিশ্বের অনেক দেশে এ দিবসটি পালিত হচ্ছে। তবে স্বয়ং আমাদের দেশে দিবসটি পালনে আর জাতীয় পতাকা উত্তোলনে রয়েছে নানা অনিহা। খোদ সরকারী প্রতিষ্ঠান মোংলা উপজেলার সুন্দরবন ইউনিয়ন স্বাস্থ্য পরিবার কল্যান কেন্দ্রের এফ ডব্লিউ রেশমা বেগম মাত্র দেড় হাত একটি গাছের ডালে জাতীয় পতাকা বেধে মাটিতে পুতে রেখেছেন। এটি শহীদের প্রতি শ্রদ্ধা করার পরিবর্তে জাতীয় পতাকার অবমুল্যায়ন আর অবমাননা করা হয়েছে বলে জানান এ মুক্তিযোদ্ধা জাহাঙ্গীর সরদার।

এ বিষয়ে যারা শহীদদের প্রতি শ্রোদ্ধা না জানিয়ে অপমান ও অবমানোনা করেছে তাদের যথাযথ ব্যবস্থা নেয়ার জন্য সরকারী সংশ্লিষ্ট দপ্তর আর ব্যাক্তি বর্গের দৃষ্টি আর্কষন করেন এ মুক্তিযোদ্ধা।

আর জাতীয় পতাকা অবমাননা করার বিষয়ে স্বাস্থ্য কেন্দ্রটির এফ ডব্লিউ রেশমা বেগমের কাছে বিষয়টি জানতে চাইলে তিনি এই প্রতিবেদককে সংবাদ প্রচার না করার জন্য অনুরোদ করেন।

তবে এ বিষয়ে সুন্দরবন ইউনিয়ন স্বাস্থ্য পরিবার কল্যান কেন্দ্রের মেডিকেল অফিসার শান্তনা দাস জানান, নিয়মানুসারে স্বাস্থ্য কেন্দ্রটির এফ ডব্লিউ রেশমা বেগম জাতীয় পতাকা উত্তোলন করার কথা। সরকারী নির্দেশনা না মেনে জাতীয় পতাকা অবমানাকর কোন কিছু করে থাকেন তার বিরুদ্ধে শাস্তি মুলক ব্যবস্থা নেয়ার জন্য উর্ধতন কর্তৃপক্ষের নিকট সুপারিশ করা হবে।

এ বিষয়ে মোংলা উপজেলা ফ্যামিলি প্লানিং কর্মকর্তা (অতিরিক্ত দায়িত্বে) দিলদার আহম্মেদ জানান, ২১ ফেব্রয়ারী ভাষা শহীদদের প্রতি সম্মান না জানিয়ে উল্টো জাতীয় পতাকার অবমুল্যায়ন আর অবমানোনার কারনে স্বাস্থ্য কেন্দ্রটির দায়ীত্ব প্রাপ্ত কর্মকর্তা রেশমা বেগমের বিরুদ্ধে শাস্তিমুলক ব্যাবস্থা নেয়া হবে।

উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মোঃ রবিউল ইসলাম জানান,বিষয়টি তদন্ত পুর্বক ব্যাবস্তা নেয়া হবে।

Print Friendly, PDF & Email

প্রতিদিনের খবর পড়ুন আপনার ইমেইল থেকে
বাগেরহাট বিভাগের সর্বশেষ
বাগেরহাট বিভাগের আলোচিত
ওপরে