১৯শে অক্টোবর, ২০১৯ ইং ৪ঠা কার্তিক, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ

samakalnew24
samakalnew24
শিরোনাম:
আত্রাইয়ে ৫দফা দাবিতে ঔষুধ কোম্পানি প্রতিনিধিদের... বরগুনায় বে-সরকারী উন্নয়ন সংস্থা আশা’র আয়োজনে কৃতি... তালতলীতে ভূয়া কাগজপত্র তৈরী করে জমি দখলের চেষ্টা চিরিরবন্দরে শাশুড়ির হাতে বউ খু’ন ঠাকুরগাঁওয়ে পৃথক সং’ঘর্ষের ঘটনায় আহত ১২

মোংলায় সাবেক স্বামীর ছুরির আঘাতে জীবন মৃত্যুর সন্নিকটে সম্পা

 মোংলা প্রতিনিধি সমকালনিউজ২৪

মোংলায় সাবেক স্বামীর ছুরির আঘাতে জীবন মৃত্যুর সন্নিকটে এক সন্তানের জননী সম্পা হাওলাদার নামের এক যুবতী। উপজেলার সোনাইলতলা এলাকায় ধারালো অস্ত্রদিয়ে এলোপাতাড়ি ভাবে শরীরের বিভিন্ন জায়গায় কুপিয়ে রক্তাক্ত যখম করা হয়েছে।

বৃহস্পতিবার রাত ৯ টায় নিজ ঘরে শিশু বাচ্চাকে পড়াচ্ছিলেন সম্পা হাওলাদার। এ সময় ঘরে ঢুকে আট মাস আগে ডির্ভোস হওয়া তার সাবেক স্বামী জাহিদ ফকির ধারালো অস্ত্র দিয়ে সম্পাকে হত্যার উদ্দ্যোশ্যে মাথাসহ শরিরের বিভিন্ন অংশে এলোপাতাড়ি কোপাতে থাকে।

এসময় ঘরে থাকা সম্পার চাচীর ডাকচিৎকারে স্থানীয় লোকজন ছুটে আসলে দ্রুত পালিয়ে যায় সাবেক স্বামী জাহিদ ফকির।

এর পর সম্পাকে উদ্ধার করে প্রথমে মোংলা উপজেলা স্বাথ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়। সম্পার অবস্থা সংকটাপন্ন হওয়ায় প্রাথমিক চিকিৎসা শেষে উন্নত চিকিৎসার জন্য তাকে খুলনা মেডিকেলে রেফার করে কর্তব্যরত চিকিৎসক ডাক্তার রাফিউল হাসান ।

সম্পার ভাই সজিব দাবী করেন, কয়েক বছর পুর্বে তার বোনের সাথে একই এলাকার জাহিদ ফকিরের সাথে বিয়ে হয়। বিয়ের পর থেকেই জাহিদ নিয়মিত নেশা করে তার বোনকে মারধর করতো।

এ জন্য গত আট মাস আগে জাহিদকে তার বোন সম্পা ডিভোস দেয়। এতে ক্ষিপ্ত হয়ে এর আগেও বেশ কয়েকবার আক্রমন করছিল জাহিদ। কিন্ত ঘরে কেউ না থাকায় বৃহস্পতিবার রাত ৯ টায় জাহিদ তার বোনকে হত্যা করার উদ্দ্যোশ্যে ধারালো অস্ত্রদিয়ে কুপিয়ে রক্তাক্ত জখম করে পালিয়ে যায়।

মোংলা উপজেলা স্বাথ্য কমপ্লেক্সের মেডিকেল অফিসার ডাঃ রাফিউল হাসান বলেন, রাতে সম্পাকে রক্তাক্ত অবস্থায় হাসপাতালে নিয়ে আসা হয় কিন্ত তার মাথায় ও শরীরের বিভিন্ন জায়গায় গুরুতর জখম থাকায় রক্ত বন্ধ করা যাচ্ছেনা তাই দ্রুত তাকে উন্নত চিকিৎসার জন্য খুলনা মেডিকেল হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।

এব্যাপারে থানায় মামলার প্রস্তুতি চলছে বলে জানান সম্পার বাবা জালাল হাওলাদা।

প্রতিদিনের খবর পড়ুন আপনার ইমেইল থেকে
বাগেরহাট বিভাগের সর্বশেষ
বাগেরহাট বিভাগের আলোচিত
ওপরে