২০শে জানুয়ারি, ২০১৯ ইং ৭ই মাঘ, ১৪২৫ বঙ্গাব্দ

samakalnew24
samakalnew24
শিরোনাম:
বাবা ভালো আছেন, কেউ অপপ্রচার চালাবেন না: কাজী মারুফ জেনে নিন বিপিএলের কোন দলের মালিক কে। জেনে নিন নতুন মন্ত্রীদের কার শিক্ষার দৌড় কতদূর চতুর্থবারের মতো প্রধানমন্ত্রী হিসেবে শপথ নিলেন শেখ... বাদ নয়, নিজেই মন্ত্রিত্ব নেননি নাহিদ!

রাজশাহীতে অটো চালক হত্যায় ঘটনায় মানববন্ধন ও অগ্নিসংযোগ

  সমকাল নিউজ ২৪

নাজিম হাসান,রাজশাহী প্রতিনিধি:
রাজশাহী মহানগরীর বড়বনগ্রাম মাস্টারপাড়া মহল্লার অটোরিকশা চালক জসিম উদ্দিন ওরফে জয় (২০)কে হত্যার প্রতিবাদে উত্তাল হয়ে উঠেছে রাজশাহী মহানগরী জুড়ে। খুনিদের শাস্তির দাবিতে মানববন্ধন করেছেন স্থানীয় জনতা। হত্যার ঘটনায় জড়িত আসামি জসিমের মুরগির খামার ও বাড়িতে বৃহস্পতিবার বিকেল সাড়ে ৪টা দিকে অগ্নিসংযোগ করেছেন বিক্ষুব্ধ এলাকাবাসী। তবে নিহত জসিমের অটোরিকশা এখনো উদ্ধার করতে পারেনি পুলিশ। এর আগে বুধবার রাত ১০টার দিকে জেলার গোদাগাড়ী উপজেলার সরমংলা এলাকা থেকে অটো চালক জসিম উদ্দিন জয়ের গলাকাটা লাশ উদ্ধার করে পুলিশ। জসিম মহানগরীর শাহমখদুম থানার বড়বনগ্রাম মাস্টারপাড়া মহল্লার আরফান আলীর ছেলে। গত সোমবার থেকে জসিম নিখোঁজ ছিলেন। এ নিয়ে মঙ্গলবার পরিবারের পক্ষ থেকে থানায় একটি সাধারণ ডায়েরি (জিডি) করা হয়। এর ভিত্তিতে তদন্ত শুরু করে পুলিশ। এরপর বুধবার নগরীর নওদাপাড়া শেখপাড়া এলাকার আবুল কালামের ছেলে জসিম উদ্দিন (২০) ও গোদাগাড়ী উপজেলার মাটিকাটা গ্রামের শাহ আলমের ছেলে সুমন আলীকে (২৪)কে আটক করে পুলিশ। পরে তাদের দেয়া তথ্যের ভিত্তিতে বৃহস্পতিবার ভোররাতে রাজিব হোসেন (২৪) নামে আরও এক যুবককে আটক করা হয়। রাজিব গোদাগাড়ীর মাটিকাটা গ্রামের মারিফুল ইসলামের ছেলে। এই তিন যুবক নিহত জসিমের বন্ধু। মহানগরীর শাহমখদুম থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মাসুদ পারভেজ জানান, আটককৃতরা স্বীকার করেছেন যে তারা এই হত্যাকাণ্ডের সঙ্গে জড়িত। আটক জসিম ও সুমনের তথ্যের ভিত্তিতেই গলাকাটা লাশ উদ্ধার করা হয়। তারা জানিয়েছেন, হত্যা করে তারা জসিমের অটোরিকশা নিয়ে পালিয়ে ছিলেন। শুধু এই অটোরিকশার জন্য তাকে নির্মমভাবে খুন করা হয়। এদিকে এ ঘটনার সঙ্গে জড়িতদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবিতে ফুঁসে উঠেছে এলাকার মানুষ। এ দাবিতে তারা বৃহস্পতিবার দিনভর এলাকায় বিক্ষোভ-সমাবেশ করেছেন। বিকালে নগরীর আমচত্বরে মানববন্ধন কর্মসূচিও পালন করেন তারা। প্রায় ঘণ্টাব্যাপি এই মানববন্ধনে সভাপতিত্ব করেন স্থানীয় ব্যবসায়ী গোলাম মোস্তফা। এসময় তারা এ ঘটনার সঙ্গে জড়িতদের কঠোর শাস্তির দাবি জানান। এই মানববন্ধনের পর হত্যার অভিযোগে আটক জসিমের বাড়িতে আগুন দেয়া হয়। পরে ফায়ার সার্ভিসের রাজশাহী সদর স্টেশনের কর্মীরা গিয়ে আগুন নিয়ন্ত্রণে আনেন। ফায়ার সার্ভিসের সদর স্টেশনের সিনিয়র স্টেশন অফিসার ফরহাদ উদ্দিন বিষয়টি নিশ্চিত করে বলেন, বিক্ষুব্ধ এলাকাবাসী আগুন দিয়েছেন সেখানে ফায়ার সার্ভিসের কর্মীরা গিয়ে আগুন নিয়ন্ত্রণে আনেন। ওসি জানান, আটক তিন যুবককে থানায় রেখে জিজ্ঞাসাবাদ করা হচ্ছে। আজ শুক্রবার তাদের আদালতের মাধ্যমে কারাগারে পাঠানো হবে। তবে নিহত জসিমের অটোরিকশা এখনো উদ্ধার করতে পারেনি পুলিশ বলে জানাগেছে।#

Print Friendly, PDF & Email

প্রতিদিনের খবর পড়ুন আপনার ইমেইল থেকে
রাজশাহী বিভাগ বিভাগের সর্বশেষ
ওপরে