২১শে আগস্ট, ২০১৯ ইং ৬ই ভাদ্র, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ

samakalnew24
samakalnew24
শিরোনাম:
বগুড়ায় বিশ্ব আলোকচিত্র দিবস পালিত চাঁদপুরে মাদ্রাসা ছাত্র হ’ত্যার ঘটনায় আটক-১; মাথা... ফেনীতে ইসলামিক ফাউন্ডেশন কর্তৃক বঙ্গবন্ধু’র ৪৪তম... আত্রাইয়ে হারিয়ে যাচ্ছে ঐতিহ্যবাহী মাটির বাড়ি ঘর বরগুনায় স্বেচ্ছাসেবকদলের ৩৯ তম প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী...

রাজশাহীর তাহেরপুরে সিগারেটের দাম নিয়ে চলছে প্রতারনা ব্যবসা

  সমকাল নিউজ ২৪

নাজিম হাসান (রাজশাহী) প্রতিনিধি: হঠাৎ তালিকা ছাড়ায় নিজেরা সিন্ডিকেট করে সিগারেটের দাম বৃদ্ধি করেছে রাজশাহীর বাগমারা উপজেলার তাহেরপুর পৌরসভার এজেন্ট ও কোম্পানির কর্মচারীরা। বর্তমানে রাজস্ব পরিশোধ করা সিগারেট গুলো হাট-বাজারে বাড়তি দামে বিক্রি করা হলেও সরকার বঞ্চিত হচ্ছে রাজস্ব আয় থেকে।

এজেন্ট ও বিভিন্ন কোম্পানির কর্মচারীরা তাহেরপুর পৌরসভার আসপার্শের এলাকার বিভিন্ন বাসা-বাড়ি ভাড়া নিয়ে এপ্রিল মাস থেকে শত শত কোটি কোটি টাকার সিগারেট গুদামজাত করে রাখে। এরপর কোম্পানির যোগসাজে মে মাসে এসে বাজারে সিগারেট সরবরাহ অর্ধেকে নামিয়ে দেন তারা। তাই এরই ফলে বাজার সংকটের মুহূর্তে খুচরা দোকানিরা বেশী দামে সিগারেট বিক্রি করছে। ফলে সিগারেট খাওয়া খোরদের সাথে খুরচা দোকানির প্রতিদিন দফায় দফায় বাকবিন্ডা লেগেই চলেছে।

খুচরা দোকানিরা জানান, আমাদের কাছে তাহেরপুরের এজেন্ট ও কোম্পানির কর্মচারীরা নিয়মিত সিগারেট সরবরাহ করছে না। তারা এর আগে আমাদেরকে বলেছিল আপনারা বেশী করে সিগারেট কিনে রাখেন। আমরা ছোটখাটো দোকানদার এতো টাকা কোথায় পাবো তাই সিগারেট কিনা হয়নি। এবং বেশী দামে সিগারেট কিনে নিয়ে এসে বেশী দামে বিক্রি করছি। তবে এজেন্ট কোম্পানির পক্ষে চাকুরিরত কর্মচারীরা জানিয়েছেন, হঠাৎ করে সরবরাহ ৩০ ভাগ কমে গেছে।

এলাকা ঘুরে জানা গেছে, রাজশাহীর বাগমারার তাহেরপুর পৌরসভার হাট-বাজারে নিম্নমানের মেরিজ, ডারবি ও শেখসহ বিভিন্ন ব্যান্ডের সিগারেটের দাম নিয়ে চলছে কারচুপি। তবে বিক্রিতে কারচুপি ও বেশি দামে বিক্রির অভিযোগ উঠেছে খুচরা দোকানীদের বিরুদ্ধে। এতে করে সিগারেট খাওয়া খোরদের সাথে খুরচা দোকানির প্রতিদিন দফায় দফায় বাকবিন্ডা ও হাতাতাতি লেগেই চলেছে। এছাড়া অসাধু এজেন্টে ব্যাবসায়ীরা এভাবে সিন্ডেকেট করে সিগারেটের দাম বাড়ালেও এখন পর্যান্ত কনো রকম নিয়মিত বাজার মনিটরিং করা হয়নি বাজার গুলোতে বলে অভিযোগ উঠেছে।

এক্ষেত্রে বাড়তি যে দাম নেয়া হচ্ছে, তা থেকে শুল্ক পাচ্ছে না সরকার। তবে কোম্পানির ডিলাররা মাল সাপ্লাই দিচ্ছেন কম। তাই দাম বেশি। ৩৫ টাকার সিগারেট ৫০ টাকা, ৫০ টাকার সিগারেট এখন ৬০ বিক্রি করা হচেছ। অর্থাৎ নির্ধারিত দরের চেয়ে ১০ থেকে ১৫ টাকা বেশি দামে বিক্রি করা হচ্ছে। কিন্তু অর্থবছরের বাজেট ঘোষণা না হলেও সিগারেটের দাম বাড়ানোর পস্তাব চলছে। আগের দাম অনুসারে রাজস্ব পরিশোধ করা সিগারেট গুলো বাড়তি দামে বিক্রি শুরু করেছে দোকানীরা। আর এ প্রক্রিয়ার মাধ্যমে কয়েক হাজার কোটি টাকা হাতিয়ে নিচ্ছেন বিভিন্ন সিগারেট কোম্পানি ও ব্যবসায়ীরা। প্যাকেটের গায়ে দাম লেখা থাকলেও বাজারে অসাধু ব্যবসায়ীরা দাম নিতছেন বেশী। উৎপাদনকারী কোম্পানিই সিগারেট সরবরাহ করছে ঠিকি তবে পাইকারি ও খুচরা বিক্রেতারা মুনাফার জন্য আরোবেশি দামে বিক্রি করছেন সিগারেট।

উল্লেখ্য,বাজেট ঘোষণা না হলেও এখনো কোম্পানি গুলো পুরনো সিগারেট সরবরাহ করছে তাও আবার নতুন দামে। অন্যদিকে বাজেটের আগে একশ্রেণীর ব্যবসায়ীরা বিভিন্ ব্যান্ডের সিগারেট কিনে গুদামজাত করে রেখেন। এখন সেগুলো বেশি দামে বিক্রি করছেন তারা। এ প্রক্রিয়ায় ভোক্তাদের কাছ থেকে হাজার হাজার কোটি কোটি টার্কা হাতিয়ে নেয়া হলেও সে অনুযায়ী রাজস্ব পাচ্ছে না বর্তমান সরকার।

Print Friendly, PDF & Email

প্রতিদিনের খবর পড়ুন আপনার ইমেইল থেকে
রাজশাহী বিভাগ বিভাগের সর্বশেষ
ওপরে