২২শে মে, ২০১৯ ইং ৮ই জ্যৈষ্ঠ, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ

samakalnew24
samakalnew24
শিরোনাম:
আখাউড়ায় আইনমন্ত্রীর নিজস্ব অর্থায়নে ইফতার মাহফিল... রংধনু শপিং লিমিটেড এর ব্যবস্থাপনা পরিচালক বাবলু ৫০ কোটি... চাঁদপুরের কৃতি সন্তান অতিরিক্ত পুলিশ সুপার জসিম... চাঁদপুরে কেরোসিনের আগুনে নববধূর মৃত্যু : আটক স্বামী। পত্নীতলায় মালঞ্চ কিন্ডার গার্টেন এন্ড হাইস্কুলের...

রাজাপুর ভিজিডি কার্ড বিতরণে দুর্নীতি ও অনিয়মের অভিযোগ

 সাইদুল ইসলাম,রাজাপুর,ঝালকাঠি সমকাল নিউজ ২৪

ঝালকাঠির রাজাপুরে ভিজিডি কার্ড বিতরণে দুর্নীতি ও অনিয়মের অভিযোগ উঠেছে। উপজেলা মহিলা বিষয়ক অধিদপ্তর সূত্রে জানাগেছে, উপজেলার ৬টি ইউনিয়নে মোট ভিজিডি কার্ডধারীর সংখ্যা ২৬৩৩ টি।

এর মধ্যে রাজাপুর সদর ইউনিয়নে ৫১৩ টি, গালুয়া ইউনিয়নে ৫০০ টি, মঠবাড়ি ইউনিয়নে ৪০৫ টি, শুক্তাগড় ইউনিয়নে ৪০৫ টি, সাতুরিয়া ইউনিয়নে ৪০৫ টি ও বড়ইয়া ইউনিয়নে ৪০৫ টি। যাহা চলতি বছরের জানুয়ারি মাস থেকে কার্ডধারীরা ৩০ কেজি হারে চালের সহায়তা পাবে।

ইউনিয়ন গুলো ঘুরে জানাগেছে, নতুন কার্ড বিতরণে ব্যাপক দুর্নীতি ও অনিয়ম হয়েছে।

অফিস সূত্র আরো জানায়, ফেব্রুয়ারি মাসে ২৬৩৩ টি কার্ড প্রস্তুত করে সকল ইউনিয়নের কার্ডধারীদের মাঝে বিতরণ করা হয়েছে। তবে গালুয়া ও রাজাপুর সদর ইউনিয়নে কার্ড বিতরণে অনিয়ম থাকায় পুনরায় নতুন করে ঐ দুই ইউনিয়নের কার্ড সংশোধন করার প্রস্তুতি চলছে।

অপর দিকে কার্ডধারীদের সাথে আলাপ করে জানাগেছে, এখন পর্যন্ত তারা দু’মাসের চাল পেয়েছে। তাও ৩০ কেজির স্থলে ২৫/২৬ কেজি করে। উপজেলা মহিলা বিষয়ক কর্মকর্তা উম্মে আয়সা ছিদ্দিকা জানান, রাজাপুর সদর ও গালুয়া ইউনিয়নে গত দু’বছরের সুবিধা ভুগিদের বহুনাম নতুন তালিকায় অন্তর্ভূক্ত থাকায় এ দুই ইউনিয়নের কার্ড সংশোধন করা হচ্ছে। অপরদিকে কার্ডধারীরা অভিযোগ করেছেন, তাদের কাছ থেকে কার্ড প্রতি ২ থেকে ৩ হাজার টাকা পর্যন্ত ইউপি সদস্য ও দালাল চক্ররা আদায় করেছে।

এ ছাড়া গালুয়া, সাতুরিয়া, শুক্তাগড়, বড়ইয়া, রাজাপুর সদর ইউনিয়নের আকলিমা বেগম, জব্বার মিয়া, তারাবানু, আয়সা বেগম, কতবানু, ছত্তার অভিযোগ করে জানায়, ইউপি সদস্যদের দালালরা ভিজিডির তালিকায় নাম অন্তর্ভুক্ত করার কথা বলে তাদের প্রত্যেকের কাছ থেকে ২ থেকে ৩ হাজার টাকা হাতিয়ে নিয়েছে। যে টাকা আজ পর্যন্ত আমরা ফেরত পাইনি এবং ভিজিডির তালিকায় আমাদের নাম অন্তর্ভুক্ত হয়নি।

এছাড়া ইউপি সদস্যরা ভিজিডি কার্ডের তালিকায় নিজেদের পরিবারের সদস্য ও আত্তীয়স্বজনদের নাম অন্তর্ভুক্ত করেছে বলে অভিযোগ রয়েছে। অথচ প্রকৃত দুঃস্থ অসহায় মানুষরা এ কার্ড থেকে বঞ্চিত হয়েছেন।

এ অনিয়ম ও দুর্নীতির ব্যাপারে ইউপি চেয়ারম্যান মজিবুল হক কামাল, ছিদ্দিকুর রহমান ও মোঃ আনোয়ার হোসেন মৃধা মজিবর এর কাছে জানতে চাইলে তারা জানায়, অনিয়ম ও দুর্নীতি যদি কিছু হয়ে থাকে তা করেছে ইউপি সদস্যরা।

এ অনিয়ম ও দুর্নীতির ব্যাপারে ইউপি সদস্যদের কাছে জানতে চাইলে অর্থ আদায়ের বিষয়টি তারা অস্বীকার করেন।

এ অনিয়ম ও দুর্নীতির ব্যাপারে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মোঃ সোহগ হাওলাদার এর কাছে জানতে চাইলে তিনি জানান, অভিযোগের ভিত্তিতে ইতোমধ্যে সাতুরিয়া ইউনিয়নের ১২টি কার্ড আমরা বাতিল করে দিয়েছি এবং সম্প্রতি শুক্তাগড় ইউনিয়নের কেওতা গ্রাম থেকে ১২ বস্তা চাল জব্দ করেছি। পরবর্তিতে সুনির্দিষ্ট কোন অভিযোগ পেলে আমি তদন্ত করে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহন করবো।

Print Friendly, PDF & Email

প্রতিদিনের খবর পড়ুন আপনার ইমেইল থেকে
ঝালকাঠি বিভাগের সর্বশেষ
ওপরে