২৩শে এপ্রিল, ২০১৯ ইং ১০ই বৈশাখ, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ

samakalnew24
samakalnew24
শিরোনাম:
একাধিক প্রেম করায় প্রেমিককে মেরে পুঁতে রাখে ফারজানা! ছাত্রের সঙ্গে ‘স্ক্যান্ডাল’, যা বললেন সেই... সেফুদার বিরুদ্ধে ভিয়েনার আদালতে মামলা শ্রীলঙ্কা হামলার ‘মাস্টার মাইন্ড’ মাওলানা জাহরান... বগুড়ায় মদসহ তিন মাদক ব্যবসায়ী গ্রেফতার

রাত পোহালেই ভোট, অপেক্ষায় বাংলাদেশ

 অনলাইন ডেস্কঃ সমকাল নিউজ ২৪

রাত পেরোলেই রবিবার। সারাদেশে সকাল ৮ থেকে শুরু হবে ভোট। আগামি ৫ বছর দেশের দায়িত্ব কার কাঁধে জনগণ আগামীকালই সে রায় জানিয়ে দেবে।

 

ভোটগ্রহণ উপলক্ষে রাজধানীসহ সারাদেশে কঠোর নিরাপত্তা ব্যবস্থা নিয়েছে আইন-শৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী। তাদের সঙ্গে স্ট্রাইকিং ফোর্স হিসেবে থাকছে সেনাবাহিনী ও বর্ডার গার্ড বাংলাদেশ (বিজিবি)। তার পরও ভোটারদের মধ্যে নিরাপত্তা নিয়ে রয়েছে উদ্বেগ। প্রার্থীরাও রয়েছেন নিরাপত্তা শঙ্কায়।

 

২০১৪ সালে অনুষ্ঠিত দশম সংসদ নির্বাচনে বিএনপিসহ অধিকাংশ রাজনৈতিক দল অংশ না নিলেও এবার তেমনটা ঘটছে না। এবারের নির্বাচনে আওয়ামী লীগের নেতৃত্বাধীন মহাজোটের মূল প্রতিদ্বন্দ্বী বিএনপিকে নিয়ে ড. কামাল হোসেনের নেতৃত্বে গঠিত জাতীয় ঐক্যফ্রন্ট। সব মিলিয়ে এ নির্বাচনে ৩৯টি রাজনৈতিক দল অংশ নিচ্ছে।

 

এদিকে প্রথমবারের মতো জাতীয় সংসদ নির্বাচনে ছয়টি আসনে ইভিএমে ভোট গ্রহণ করা হবে। আসনগুলো হচ্ছে রংপুর-৩, খুলনা-২, সাতক্ষীরা-২, ঢাকা-৬ ও ১৩ এবং চট্টগ্রাম-৯। এসব আসনের ভোটার সংখ্যা ২১ লাখ ২৪ হাজার ৫৫৪ জন। ভোটকেন্দ্রের সংখ্যা ৮৪৫ এবং কক্ষের সংখ্যা ৫ হাজার ৩৮টি। নির্বাচনে ভোটগ্রহণের দায়িত্ব পালন করবেন ৪০ হাজার ১৮৩ জন প্রিসাইডিং অফিসার, ১ লাখ ৯৫ হাজার ৩১৬ জন সহকারী প্রিসাইডিং অফিসার এবং ৩ লাখ ৯০ হাজার ৬৩২ জন পোলিং অফিসার। এর বাইরে নির্বাচনী অনিয়ম তদন্তের জন্য আছে ২৪৪ জনের সমন্বয়ে গড়া ১২২টি নির্বাচনী তদন্ত কমিটি। নির্বাচনী অপরাধের তাত্ক্ষণিক বিচারকাজ পরিচালনার জন্য নিয়োগ দেয়া হয়েছে ৬৪০ জন বিচারিক হাকিম ও ৬৫২ জন নির্বাহী হাকিম।

 

এর আগে দশম জাতীয় সংসদ নির্বাচনেও অংশ নেয়নি বিএনপি নেতৃত্বাধীন ২০ দলীয় জোট। সে নির্বাচনে বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় সংসদ সদস্য নির্বাচিত হন ১৫৩ জন। বিরোধী দলের কাছে ওই নির্বাচন ছিল ‘গণতন্ত্র হত্যার নির্বাচন’।

Print Friendly, PDF & Email

প্রতিদিনের খবর পড়ুন আপনার ইমেইল থেকে
ওপরে