১৮ই ফেব্রুয়ারি, ২০২০ ইং ৬ই ফাল্গুন, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ

samakalnew24
samakalnew24
শিরোনাম:
একই কাজ সমানতালে করলেও মজুরী বৈষম্যের শিকার হচ্ছে নারী... রি’ফাত হ’ত্যা : শেষ সাক্ষীর সাক্ষ্যগ্রহণ চলমান ওপার বাংলার অভিনেতা তাপস পাল আর নেই মুজিববর্ষ উপলক্ষ্যে ইবিতে সাহিত্য ও সাংস্কৃতিক... দ. সুনামগঞ্জে কবি আশিন আমরিয়ার মৃ’ত্যুতে শোকসভা

শৈলকুপায় প্রচন্ড ঠান্ডায় বেড়েছে শিশুর ডায়রিয়া ও নিউমোনিয়া

  সমকালনিউজ২৪

এম.বুরহান উদ্দীন-শৈলকুপা (ঝিনাইদহ) ::

ঝিনাইদহের শৈলকুপায় এই শীতে শিশুর ডায়রিয়া ও নিউমোনিয়ার প্রকোপ বেড়েছে রোটা নামের ভাইরাসে। গত এক সপ্তাহে প্রচন্ড ঠান্ডায় কয়েকশ’ শিশু বহির্বিভাগ ও জরুরি বিভাগে চিকিৎসা নিলেও মাত্র ছয়টি আলাদা বেডে রাখা হয়েছে ৫০ শয্যার শৈলকুপা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে। হাসপাতালটিতে নেই কোনো শিশু বিশেষজ্ঞ।

রোববার বিকেলে শৈলকুপা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স ঘুরে দেখা যায়, উপজেলার কাতলাগাড়ী এলাকার ইশা বেগম, খালকুলা গ্রামের লাবণী বেগম, মালিপাড়া গ্রামের এশা খাতুন, জালশুকা গ্রামের আশরাফুল, হাকিমপুর গ্রামের খাদিজা বেগম ডায়রিয়া ও নিউমোনিয়ায় আক্রান্ত তাদের শিশুদের নিয়ে এসেছেন স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে। পুরুষ ওয়ার্ডের বাথরুমের পাশে সাঁতসেঁতে পরিবেশের সাধারণ ডায়রিয়ায় আক্রান্ত বেডে চিকিৎসার জন্য সবাইকে রাখা হয়েছে।
খাদিজা বেগম জানান, তার শিশু প্রচন্ড ঠান্ডায় ডায়রিয়ায় আক্রান্ত হয়েছে। গত শুক্রবার তাকে হাসপাতালে ভর্তি করি। তিন দিন তাদের পুরুষ ওয়ার্ডের ডায়রিয়া রোগীর বেডেই রাখা হয়েছে।

শৈলকুপা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের সিনিয়র স্টাফ নার্স শামীমা নাসরিন বলেন, গত এক সপ্তাহে তারা ঠান্ডাজনিত ডায়রিয়া ও নিউমোনিয়ায় আক্রান্ত ২৯ শিশুকে হাসপাতালে ভর্তি করে চিকিৎসা দিয়েছেন। তিনি আরো জানান, রোববার আট শিশু ঠান্ডাজনিত রোগে আক্রান্ত হয়ে হাসপাতালে ভর্তি হয়েছে।

বহির্বিভাগের মেডিকেল অফিসার কিরীটি ও উপ-সহকারী কমিউনিটি মেডিকেল অফিসার আশরাফুজ্জামান জানান, প্রচন্ড ঠান্ডায় শিশুরা ডায়রিয়া ও নিউমোনিয়ায় আক্রান্ত হয়ে হাসপাতালে আসছে। তারা প্রতিদিন যে পরিমাণ রোগী দেখছেন তার বেশিরভাগই শিশু।

প্রতিদিনের খবর পড়ুন আপনার ইমেইল থেকে
স্বাস্থ্য বিভাগের সর্বশেষ
ওপরে