১৬ই সেপ্টেম্বর, ২০১৯ ইং ১লা আশ্বিন, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ

samakalnew24
samakalnew24
শিরোনাম:
ঝালকাঠিতে পাওনা টাকাকে কেন্দ্র করে হা’মলায় আহত... অ’পহরণের ৫ দিন পর ঠাকুরগাঁও থেকে তরুণীকে উ’দ্ধার বঙ্গবন্ধু গোল্ডকাপ ফুটবল টুর্ণামেন্ট... র‌্যাবের অ’ভিযানে ২৫৬০ পিস ই’য়াবাসহ ব্যবসায়ী... দুর্গাপুরে হা-ডু-ডু প্রতিযোগিতা

সরকারী দলের কোন নেতাকর্মী নদীতে বালি উত্তোলনের সঙ্গে জড়িত থাকলে তাদের বিরুদ্ধে কঠোর ব্যবস্থা নেওয়া হবে—পানি সম্পদ উপমন্ত্রী

 মোহাম্মদ মোজাম্মেল হক, সমকালনিউজ২৪

পানি সম্পদ মন্ত্রনালয়ের উপমন্ত্রী ও বাংলাদেশ আওয়ামীলীগের কেন্দ্রীয় কমিটির সাংগঠনিক সম্পাদক এ কে এম এনামুল হক শামীম বলেছেন সরকারী দলের কোন নেতাকর্মী নদীতে বালি উত্তোলনের সঙ্গে জড়িত থাকলে তাদের বিরুদ্ধে কঠোর ব্যবস্থা নেওয়া হবে। কোন অবস্থায় তাদরে ছাড় দেওয়া হবে না।

তিনি আরও বলেন, মাননীয় প্রধান মন্ত্রীর ঘোষনা জনগনকে কষ্ট দিয়ে আওয়ামীলীগ, যুবলীগ ও ছাত্রলীগ যদি নদীতে ড্রেজার বসিয়ে বালি উত্তোলনের সঙ্গে জড়িত থাকে তবে তাদের শাস্তি হবে আরও বেশী।

তিনি আজ সোমবার টাঙ্গাইলের মির্জাপুরে বন্যায় ভাঙ্গন কবলিত বিভিন্ন এলাকায় পরিদর্শন শেষে সাংবাদিকদের বিভিন্ন প্রশ্নে এ সব কথা বলেন। সকাল নয়টায় তিনি উপজেলা পরিষদ চত্তরে এসে পেীঁছালে টাঙ্গাইল জেলা ও মির্জাপুর উপজেলা প্রশাসনের কর্মকর্তাগন এবং স্থানীয় সাংসদ বীর মুক্তিযোদ্ধা আলাহজ¦ মো. একাব্বর হোসেনসহ দলীয় নেতাকর্মীরা তাকে ফলেল শুভেচ্ছা জানান।

পরে পানি সম্পদ উপমন্ত্রী ও বাংলাদেশ আওয়ামীলীগের কেন্দ্রীয় কমিটির সাংগঠনিক সম্পাদক এ কে এম এনামুল হক শামীম নৌকা যোগে উপজেলার ফতেপুর ও লতিফপুর ইউনিয়নের বংশাই নদীর ভাঙ্গন কবলিত বিভিন্ন এলাকা এবং বহুরিয়া ও ভাওড়া ইউনিয়নের বুদিরপাড়া-কেশবপুর রাস্তাসহ ভাঙ্গন কবলিত বিভিন্ন ক্ষতিগ্রস্থ্য এলাকা পরিদর্শন করবেন। উপমন্ত্রী এনামুল হক শামীম বলেন, বর্তমান সরকার জন বান্ধব সরকার। শেখ হাসিনার বলিষ্ট নের্তৃত্বে দেশ আজ এগিয়ে যাচ্ছে। হাজার বছরের শ্রেষ্ঠ বাঙ্গালী জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান চেয়েছিলেন এ দেশ হবে সোনার বাংলা। কিন্ত ঘাতকরা জাতির জনকের সে স্বপ্নকে বাস্তবায়ন করতে দেয়নি। পিতার আদর্শকে ধারন করে মাননীয় প্রধান মন্ত্রী দেশ ও দেশের মানুষের কল্যাণের জন্য কাজ করে যাচ্ছেন।

উপমন্ত্রী আরও বলেন, সারা দেশে বন্যায় নদী ভাঙ্গনের ফলে জনগনের ব্যাপক ক্ষয়-ক্ষতি হয়েছে। সরকারের পক্ষ থেকে প্রতিটি এরাকায় ক্ষতিগ্রস্থ্যদের সহায়তা দিতে যথাযত পদক্ষেপ গ্রহন করা হয়েছে। মির্জাপুর উপজেলার ফতেপুর, লতিফপুর, বহুরিয়া ও ভাওড়া ইউনিয়নের হাট-বাজার, শিক্ষা প্রতিষ্ঠান, রাস্তা-ঘাট ও ঘরবাড়ি তৈরীর জন্য ইতমধ্যে ১২৫ কোটি টাকার প্রকল্প দেওয়া হয়েছে। মানুষের কষ্ট দেখে প্রকল্পের টাকা আরও বাড়ানো হবে বলে তিনি ঘোষনা দেন।

এ সময় সড়ক পরিবহন ও সেতু মন্ত্রনালয় সম্পর্কিত সংসদীয় স্থায়ীী কমিটির সভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা আলহাজ¦ মো. একাব্বর হোসেন এমপি, টাঙ্গাইলের জেলা প্রশাসক মো. শহীদুল ইসলাম, পুলিশ সুপার মি. সনজিত কুমার রায়, জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের সিনেট সদস্য মীর্জা আব্দুল্লাহেল কাফী, পানি উন্নয়ন বোর্ডের প্রধান প্রকৌশলী ওয়াকিল কুমার বিশ্বাস, তত্বাবধায়ক প্রকৌশলী মো. শফিকুল ইসলাম, টাঙ্গাইলের নির্বাহী প্রকৌশলী মো. সিরাজুল ইসলাম, উপ বিভাগীয় প্রকৌশলী গোলাম ফারুক, মির্জাপুর উপজেলা নির্বাহী অফিসার মো. আবদুল মালেক, মির্জাপুর উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান মীর এনায়েত হোসেন মন্টু ও উপজেলা আওয়ামীলীগের সাধারন সম্পাদক মীর শরীফ মাহমুদ প্রমুখ।

 

‘বিদ্রঃ সমকালনিউজ২৪.কম একটি স্বাধীন অনলাইন পত্রিকা। সমকালনিউজ২৪.কম এর সাথে দৈনিক সমকাল এর কোন সম্পর্ক নেই।’

প্রতিদিনের খবর পড়ুন আপনার ইমেইল থেকে
টাঙ্গাইল বিভাগের সর্বশেষ
টাঙ্গাইল বিভাগের আলোচিত
ওপরে