১৯শে মার্চ, ২০১৯ ইং ৫ই চৈত্র, ১৪২৫ বঙ্গাব্দ

samakalnew24
samakalnew24
শিরোনাম:
রাকসু আন্দোলন মঞ্চকে আলোচনা সভা করতে দেয়নি প্রশাসন কালাইয়ে আ.লীগের দু”পক্ষের সংঘর্ষে ঘটনায় ইউপি... রাঙ্গামাটিতে ব্রাশ ফায়ারে প্রিসাইডিং অফিসারসহ নিহত ৭ নওগাঁর ১০ উপজেলায় উপজেলা পরিষদ নির্বাচন কেন্দ্রে ভোটার... রাতের আঁধারে ঘুম থেকে জাগিয়ে হত্যা

সিরিয়া থেকে ৫০ টন স্বর্ণ নিয়ে গেছে মার্কিন সেনারা!

  সমকাল নিউজ ২৪
সিরিয়া থেকে ৫০ টন স্বর্ণ নিয়ে গেছে মার্কিন সেনারা!

মার্কিন সেনাবাহিনী সিরিয়ায় আইএস অধিকৃত এলাকা থেকে বেশ কয়েক টন স্বর্ণ স্থানান্তর করেছে বলে জানানো হয়েছে কয়েকটি গণমাধ্যমের খবরে।

কুর্দি বাস নিউজ এজেন্সিকে একটি সূত্র জানায়, মার্কিন সৈন্যরা সিরিয়ায় আইএস নিয়ন্ত্রিত এলাকা থেকে প্রায় ৫০ টন স্বর্ণ সরিয়েছে। বেঁচে যাওয়া স্বর্ণের একটি অংশ পিকেকে দলের সিরীয় সংস্করণ পিপলস প্রোটেকশন ইউনিটকে (ওয়াইপিজে) দেয়া হয়েছে।

তুরস্কের পত্রিকা ডেইলি সাবাহ জানায়, কাবোনিতে অবস্থিত মার্কিন ঘাঁটি থেকে এই স্বর্ণ পরিবহন করা হয়।

একই সঙ্গে, ইরাকের মসুল অঞ্চল থেকে আইএস সদস্যদের হাতে থাকা ৪০ টন সোনার বারও নিয়ে গেছে মার্কিন সেনাবাহিনী।

সিরিয়ার রাষ্ট্রীয় বার্তা সংস্থা সানাকে স্থানীয়রা জানায়, মার্কিন সৈন্যরা আইএসের স্বর্ণ বোঝাই বড় বড় বাক্স আল-দাশিশে অঞ্চল থেকে দক্ষিণের হাসাকা এলাকায় নিয়ে গেছে।

যুক্তরাজ্য ভিত্তিক সংস্থা সিরিয়ান অবজারভেটরি অফ হিউম্যান রাইটসও (এসওএইচআর) একটি প্রতিবেদনে একই ধরনের তথ্য দিয়েছে। মানবাধিকার সংস্থাটি জানায়, যুক্তরাষ্ট্র সমর্থিত অয়াইপিজে দাইর-এল-জুরে আইএসের রেখে যাওয়া ৪০ টন স্বর্ণ কব্জা করতে চায়।

‘যুক্তরাষ্ট্র সমর্থিত জোট বাহিনী এবং সিরিয়ান ডেমোক্রেটিক ফোর্স (এসডিএফ) ইচ্ছা করেই পূর্ব ইউফ্রেটিসের দাইর আল-জুরে আইএসের নিয়ন্ত্রণাধীন এলাকাগুলোতে হামলা করছে না। কারণ, তারা চাইছে আইএস সদস্যরা আত্মসমর্পণের পর তাদের কাছ থেকে লুকানো সম্পদের বিষয়ে তথ্য আদায় করতে,’ জানায় সিরিয়ান অবজারভেটরি।

ইরাক ও সিরিয়ার অনেক জায়গার ওপর আইএস নিয়ন্ত্রণ হারালেও পিকেকের সঙ্গে ঘনিষ্ঠ সিরীয় দলগুলোর সঙ্গে আইএস সদস্যদের বিতর্কিত সম্পর্ক রয়েছে। সাবাহ বলছে, তুরস্কে বিভিন্ন সময়ে হামলার জন্য দায়ী ‘সন্ত্রাসী সংগঠন’ পিকেকের সঙ্গে ঘনিষ্ঠ দলগুলো সিরিয়ার রাক্কা শহর থেকে আইএস সদস্যদের নিরাপদে সরে যেতে সহায়তা করছে।

সিরিয়ায় এখনও প্রায় দুই হাজার মার্কিন সৈন্য রয়েছে। এদের অনেকেই এসডিএফের সঙ্গে ঘনিষ্ঠ ভাবে কাজ করছে।

ইউফ্রেটিস নদীর পূর্ব তীরে সিরিয়ার আসাদ সরকারের নিয়ন্ত্রিত এলাকাগুলো ছাড়া প্রায় সব এলাকাই এখন এসডিএফের নিয়ন্ত্রণে।

Print Friendly, PDF & Email

প্রতিদিনের খবর পড়ুন আপনার ইমেইল থেকে
আন্তর্জাতিক বিভাগের আলোচিত
ওপরে