১৭ই অক্টোবর, ২০১৯ ইং ২রা কার্তিক, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ

samakalnew24
samakalnew24
শিরোনাম:
রি’ফাত হ’ত্যা মা’মলার প্রধান আ’সামির জা’মিন... স্পেনে টাইগার মাদ্রিদের নতুন জার্সি উন্মোচন ও... দ্বিতীয় বারের মত শুভসন্ধ্যা সৈকতে হতে যাচ্ছে জোছনা উৎসব বরগুনা সরকারি কলেজে পরিচ্ছন্নতা অভিযান সমাপ্ত ঝালকাঠিতে খাদ্য অধিকার আইনের দাবিতে সমাবেশ

সিলেটের ১৩ উপজেলায় প্রায় ২ কোটি টাকা ব্যয়ে ১৯৫০ পরিবার পাচ্ছেন ঘর

 এস.এ শফি, সিলেট, সমকালনিউজ২৪

রুপকল্প-২১ বাস্তবায়নের লক্ষ্যে অগ্রাধিকার ভিত্তিতে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ১০টি বিশেষ উদ্যোগের ২য় উদ্যোগ আশ্রয়ন প্রকল্প (আশ্রয়ন প্রকল্প-২)’র আওতায় বাসস্থানের জন্য ঘর পাচ্ছেন সিলেটের ১৩ টি উপজেলার ১৯৫০টি হতদরিদ্র পরিবার। সবার জন্য বাসস্থান নিশ্চিত করার লক্ষ্যে সরকার ‘জমি আছে, ঘর নাই প্রকল্প’র আওতায় সারা দেশের ন্যায় সিলেট জেলায় হতদরিদ্র পরিবারের সদস্যদের জন্য নির্মাণ করে দিচ্ছে ঘর।

আশ্রয়ন প্রকল্প (আশ্রয়ন প্রকল্প-২)’র আওতায় বাসস্থানের জন্য সিলেট জেলার বালাগঞ্জ উপজেলায় ১০৮টি পরিবার, বিশ্বনাথ উপজেলায় ৯৬টি, কোম্পানীগঞ্জ উপজেলায় ১৪৪টি, ফেঞ্চুগঞ্জ উপজেলায় ৬০টি, গোলাপগঞ্জ উপজেলায় ১৪৪টি, গোয়াইনঘাট উপজেলায় ২৭০টি, কানাইঘাট উপজেলায় ৩০০টি, জৈন্তাপুর উপজেলায় ১৪৪টি, জকিগঞ্জ উপজেলায় ২৪০টি, ওসমানীনগর উপজেলায় ৯৬টি, বিয়ানীবাজার উপজেলায় ১৩২টি, দক্ষিণ সুরমা উপজেলায় ১২০টি ও সিলেট সদর উপজেলায় ৯৬টি পরিবারের মধ্যে ঘর নির্মাণ করা হচ্ছে। জানা গেছে, ২/৩ মাসের মধ্যেই এ নির্মাণ কাজ সম্পন্ন হবে। প্রতিটি ঘর নির্মাণে ব্যয় হচ্ছে ১ লক্ষ টাকা। প্রতিটি ঘর টিনশেড দিয়ে তৈরী করা হচ্ছে। ঘরে থাকবে ১টি রুম, ১টি রান্নাঘর ও একটি বাথরুম। সিলেটের ১৩টি উপজেলার ১০৮টি ইউনিয়নে ১৯৫০টি ঘর নির্মাণে ব্যয় হচ্ছে ১ কোটি ৯৫ লক্ষ টাকা।

শেখ হাসিনার নেতৃত্বাধীন সরকার প্রথম দিক থেকেই দেশের হতদরিদ্র গরীব ভূমিহীন পরিবারের সদস্যদেরকে আশ্রয়ণ প্রকল্পের মাধ্যমে ও খাস জমি স্থায়ী বন্দোবস্ত দিয়ে বসবাসের জন্য ‘আপন ঠিকানা (বাসস্থান)’ দিয়েছিল। বর্তমানে দেশের যেসব গরীব পরিবারের জমি আছে অথচ ঘর নির্মাণ করতে অক্ষম, তাদেরকে ‘জমি আছে, ঘর নাই প্রকল্প’র মাধ্যমে নিজের জমিতেই বসবাসের জন্য আপন ঠিকানা তৈরী করে দিচ্ছে সরকার। পর্যায়ক্রমে দেশের সর্বস্তরের মানুষের বাসস্থান নিশ্চিত করার লক্ষ্যেই প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সরকার আশ্রয়ন প্রকল্প ও আশ্রয়ন প্রকল্প-২’র মাধ্যমে কাজ করে যাচ্ছে। ইতিমধ্যে সিলেট জেলার চলমান ঘর নির্মাণ কাজের প্রায় ৪০% কাজ সম্পন্ন হয়েছে বলে জানা গেছে। সিলেটে ১৩ টি উপজেলার ১০৫টি ইউনিয়নে বাছাই শেষে ১৯৫০টি ঘর নির্মাণের চলমান কাজ সঠিকভাবে সম্পন্ন করার জন্য প্রশাসনের পক্ষ থেকে সর্বদা তদারকি করা হচ্ছে।

দক্ষিণ সুরমা উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মিন্টু চৌধুরী বলেন, প্রধানমন্ত্রীর গৃহিত বিশেষ উদ্যোগ আশ্রয়ন প্রকল্প (আশ্রয়ন প্রকল্প-২)’র আওতায় ‘জমি আছে, ঘর নাই প্রকল্প’র মাধ্যমে দক্ষিণ সুরমায় ১২০টি গৃহহীন হতদরিদ্র গরীব পরিবারকে ঘর নির্মাণ করে দিচ্ছে সরকার। কাজটি চলমান রয়েছে, খুব শীঘ্রই কাজ সম্পন্ন হবে।

বিশ্বনাথ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা বর্ণালী পাল চৌধুরী জানান, ঘর-বাড়ি বিহীন মানুষদেরকে নিজেদের আপন ঠিকানা দিতে বিশ্বনাথ উপজেলার ৮টি ইউনিয়নে ৯৬টি পরিবারের মধ্যে ঘর নির্মাণ কাজ করা হচ্ছে।

সিলেট-৩ আসনের সংসদ সদস্য মাহমুদ-উস-সামাদ চৌধুরী জানান, বঙ্গবন্ধুর স্বপ্নের সোনার বাংলা বিনির্মানের লক্ষ্যেই সরকার ক্ষমতায় আসার পর মানুষের জীবনমান উন্নয়নে কাজ করে যাচ্ছে। দেশ ও মানুষের উন্নয়নে অগ্রাধিকার ভিত্তিতে গ্রহন করেছেন ১০টি প্রকল্প। এ ১০টি প্রকল্পের মধ্যে রয়েছে আশ্রয়ন প্রকল্প। এই আশ্রয়ন প্রকল্পের মাধ্যমে ভূমিহীন ও ঘর-বাড়িহীন হতদরিদ্র গরীব মানুষগুলোকে দিচ্ছেন তাদের আপন নীড়ের ঠিকানা।

 

 

‘বিদ্রঃ সমকালনিউজ২৪.কম একটি স্বাধীন অনলাইন পত্রিকা। সমকালনিউজ২৪.কম এর সাথে দৈনিক সমকাল এর কোন সম্পর্ক নেই।’

প্রতিদিনের খবর পড়ুন আপনার ইমেইল থেকে
সিলেট বিভাগের আলোচিত
ওপরে