৩রা জুন, ২০২০ ইং ২০শে জ্যৈষ্ঠ, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ

samakalnew24
samakalnew24
শিরোনাম:
করোনায় পুনরায় বাড়তে পারে সাধারণ ছুটি! বিয়ের এত বছর পরেও কেনো এই তারকরা নিঃসন্তান ! যেভাবে লোক ঠকানো হচ্ছে তাতে আমি সুস্থ হয়েও আবার অসুস্থ... বাস ভাড়া বৃদ্ধির প্রতিবাদে বগুড়ায় মানববন্ধন বরগুনায় ভিজিএফ চাল আত্মসাতের অভিযোগে দুই ইউপি...

সুন্দরবনে র‌্যাবের সাথে বন্দুক যুদ্ধে রানা বাহিনীর প্রধানসহ ৩ বনদস্যু নিহত, অস্ত্র ও গুলি উদ্ধার,দুই র‌্যাব সদস্য আহত

 মোংলা প্রতিনিধি সমকালনিউজ২৪

পুর্ব সুন্দরবনের চাঁদপাই রেঞ্জের চরাপুটিয়া এলাকায় খোন্তা কোদালিয়া খালে র‌্যার ও বনদস্যু রানা বাহিনীর সাথে বন্দুক যুদ্ধের ঘটনা ঘটেছে । প্রায় ঘন্টাব্যাপী গোলা-গুলীর পর র‌্যাব এর গুলির মুখে টিকতে না পেরে দস্যুরা পিছু হটতে বাধ্য হয়।

পরে র‌্যাব সদস্যরা বনের ঘটনাস্থলে তল্লাসী চালিয়ে গুলিবিদ্ধ অবস্থায় রানা বাহিনীর প্রধান রানা ও সেকেন্ট ইন কমান্ডসহ তিন দস্যুকে গুলিবিদ্ধ অবস্থায় উদ্ধার করে মোংলা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে যায়। সেখানে কর্ব্যরত চিকিৎসক তাদেরকে মৃত ঘোষনা করে। গোলাগুলির পর ঘটনাস্থল বনের আশপাশ পরিত্যাক্ত অবস্থায় ৪টি আগ্নেয়াস্ত্র ১টি নৌকা ও বেশ কিছু গোলাবারুদ সহ দস্যুদের ব্যবহৃত মালামাল উদ্ধার করে র‌্যাব সদস্যরা।

র‌্যাপিড এ্যাকশান ব্যাটালিয়ান র‌্যাব-৬ এর স্পেশাল কোম্পানী কমার্ন্ডার মোঃ শামিম সরকার সুন্দরবন থেকে ফুঠোফোনে জানান, পুর্ব সুন্দরবনের আন্দারমানিক, নন্দবালা, চরাপুটিয়া, হারবাড়িয়া, মরা পশুর, জোংড়া ও দুবলারচর এলাকা থেকে গত কয়েক মাস ধরে এবং চলতি মাসে প্রায় অর্ধশত জেলে ও প্রায় ২০/২৫টি ট্রলারসহ মাছ ও মালামাল ভাংচুর লুটতরাজ করে দস্যু বাহিনীর দসস্যরা। ওই সমস্ত জেলেদের মুক্তিপনের দাবিতে অপহরন করে জলদস্যু রানা বাহিনীর সদস্যরা। তারা জেলে বহরে হামলা,মারধর ও লুটপাট চালিয়ে প্রায় কোটি টাকার ইলিশ এবং অন্যান্য মাছসহ বিভিন্ন মালামাল লুট করে নেয় দস্যু গ্রূপটি।

এছাড়াও বনের অন্যান্য জায়গার বেশ কিছু এলাকা থেকে জেলে অপহরন করেছে এ দস্যুরা। তাই চলতি বছর ও মে মাস থেকে জেলেদের নিরাপত্তা ও দস্যুদমনে অভিযানে নামে র‌্যাব।

তিনি আরো জানায়, দস্যু মুক্ত সুন্দরবন ঘোষনা করার পরেও বন জীবিদের কাছ থেকে চাঁদা আদায়ের জন্য সুন্দরবনে অবস্থান করছে, এমন গোপন সংবাদের ভিত্তিতে র‌্যাব -৬ এর একটি দল সোমবার সকালে সুন্দরবনের চাঁদপাই রেঞ্জের চরাপুটিয়া এলাকার খোন্তা কোদালিয়া খালে অভিযান শুরু করে। ঘটনাস্থলের কাছাকাছী পৌছালে বনের মধ্যে লুকিয়ে থাকা দস্যুরা র‌্যাব সদস্যেদের কে লক্ষ করে গুলি ছোড়ে।

এসময় র‌্যাবও তাদের আত্মরক্ষার্থে পাল্টা গুলি চালায়। ঘন্টাব্যাপী এ গুলি বিনিময়ের পর র‌্যাব সদস্যদের গুলীর মুখে টিকতে না পেরে দস্যুরা পিছু হটতে বাধ্য হয়। পরে ওই এলাকায় তল্লাশী চালিয়ে গুলিবিদ্ধ ৩ (তিন) দস্যুকে উদ্ধার করে মোংলা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স এ নিয়ে আসে র‌্যাবের অভিযানিক দলটি।

এ সময় হাসপাতালে দায়িত্বরত ডাক্তার রাফিউল হাসান দস্যুদের মৃত ঘোষনা করে।

স্থানীয় জেলেদের বরাত দিয়ে র‌্যাবের ওই কর্মকর্তা জানান, নিহত বনদস্যুরা হলেন,সুন্দরবনের দুধর্ষ বনদস্যু রানা বাহিনীর প্রধান পান্না ওরপে রানা (৩০), তার সহযোগী (সেকেন্ড ইন কমান্ড) জুলহাস (৩৮) দলের সক্রিয় সদস্য কামরুজ্জামান (৩৯) । তারা সবাই বাগেরহাট জেলার মোড়লগঞ্জ উপজেলার বাসিন্ধা।

সোমবার দুপুরে দস্যুদের মৃতদেহ তিনটি ডাকাতী ও অস্ত্র মামলা দায়ের শেষে মোংলা থানায় হস্তান্তর করা হয়েছে।

মোংলা থানার ওসি তদন্ত তুহিন মন্ডল জানান, জলদস্যুর লাশের সুরতহাল রিপোট তৈরীসহ আইনানুক প্রক্রিয়া শেষে মৃতদেহ তিনটি বাগেরহাট জেলা মর্গে পাঠানো হয়েছে।

এ দিকে গুলি বিনিময় কালে র‌্যাবের দুই সদস্য আসিব ইকবাল ও আবরাহাম লিংকন আহত হয়েছে। এ দুই র‌্যাব সদস্য কে মোংলা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সএ প্রাথমিক চিকিৎসা নিয়ে খুলনা পাঠানো হয়।

প্রতিদিনের খবর পড়ুন আপনার ইমেইল থেকে
বাগেরহাট বিভাগের সর্বশেষ
বাগেরহাট বিভাগের আলোচিত
ওপরে