৮ই ডিসেম্বর, ২০১৯ ইং ২৩শে অগ্রহায়ণ, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ

samakalnew24
samakalnew24
শিরোনাম:
ছাতকে আ.লীগের দু’গ্রুপ মুখোমুখি, ১৪৪ ধারা জারি কলাপাড়া ভূমি দস্যুদের বিরুদ্ধে অধিগ্রহনে... প্রবাসীর বৃদ্ধা মা ও ভগ্নিপতি সহ তিনজনের লা’শ... কোম্পানীগঞ্জের বসুরহাট মা ও শিশু হাসপাতালে ভুল... চিলমারী ভাসমান তেল ডিপোটি পুটিমারী এলাকায়...

স্ত্রী হ’ত্যা মামলার পলাতক স্বামী ঢাকায় গ্রে’প্তার

 এম এ ইউসুফ,রাণীনগর, সমকালনিউজ২৪

নওগাঁর রাণীনগরে স্ত্রী হ’ত্যা মামলার প্রধান আসামী পলাতক স্বামী মাসুদ রানাকে ১৮ দিন পর নি’হত স্ত্রীর স্বজন ও স্থাণীয় জনতা আটক করে ঢাকার শাহ আলী থানায় সোর্পদ করে। খবর পেয়ে রাণীনগর থানাপুলিশ ওই রাতেই শাহ আলী থানায় গিয়ে মাসুদ রানাকে নিয়ে আসে।

গ্রে’ফতারকৃত মাসুদ রানা রাণীনগর উপজেলার সিম্বা গ্রামের আফছার আলীর ছেলে।

রাণীনগর থানার অফিসার ইনচার্জ মো: জহুরুল হক বলেন, গত ৩১ জুলাই রাতে স্ত্রী সাকিলা আক্তার শ্যামলিকে পিটিয়ে হ’ত্যার অভিযোগে গৃহবধুর বাবা আব্দুল সাত্তার মন্ডল বাদি হয়ে রাণীনগর থানায় একটি মামলা দায়ের করলেও পতলাক থাকায় স্বামী মাসুদ রানাকে গ্রে’ফতার করা সম্ভব হচ্ছিল না। এর মাঝে সাকিলার স্বজনরা ঢাকার শাহ আলী থানা এলাকায় গত রোববার সন্ধ্যায় মাসুদকে দেখতে পেয়ে স্থানীয় লোকজনের সহায়তায় আটক করে থানা পুলিশে সোর্পদ করে। খবর পেয়ে রাণীনগর থানা পুলিশ রাতেই শাহ আলী থানায় গেলে মাসুদ রানাকে রাণীনগর থানা পুলিশের কাছে হস্তান্তর করে।

উল্লেখ্য, রাণীনগর উপজেলা সদরের সিম্বা গ্রামের আফসার আলীর ছেলে মাসুদ রানা একই উপজেলার বেলবাড়ি গ্রামের আব্দুস সাত্তারের মেয়ে সাকিলা আক্তার শ্যামলী (৩২) কে বিয়ে করে। তাদের সংসারে এক ছেলে ও এক মেয়ে রয়েছে। এরই মধ্যে হঠাৎ করে প্রায় দুই থেকে আড়াই মাস আগে প্রতিবেশী জনৈক তিন সন্তানের জননীকে দ্বিতীয় বিয়ে করে মাসুদ রানা। বিয়ের পর থেকে প্রথম স্ত্রীর প্রতি শুরু করে শারীরিক ও মানসিক নির্যাতন। এনিয়ে পারিবারিক ও সামাজিক ভাবে সমাধানের লক্ষ্যে দফায় দফায় বৈঠক হলেও সুষ্ঠু কোন সমাধান না হওয়ার এক পর্যায়ে গত ৩১ জুলাই বিকেলে স্ত্রী শ্যামলীকে পিটিয়ে হ’ত্যার পর মাসুদ রানা নিজেই শ্বশুর বাড়িতে খবর দেয় যে তাদের মেয়ে গুরুত্বর অসুস্থ ।

এ ঘটনায় শ্যামলীর বাবা আব্দুস ছাত্তার বাদী হয়ে রাণীনগর থানায় ওই দিন রাতে একটি হ’ত্যা মামলা দায়ের করলে পুলিশ লা’শ উদ্ধার করে ময়না তদন্তের জন্য নওগাঁ সদর হাসপাতালে প্রেরণ করে।

প্রতিদিনের খবর পড়ুন আপনার ইমেইল থেকে
নওগাঁ বিভাগের সর্বশেষ
নওগাঁ বিভাগের আলোচিত
ওপরে