২১শে এপ্রিল, ২০১৯ ইং ৮ই বৈশাখ, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ

samakalnew24
samakalnew24
শিরোনাম:
আমি চাইলে নিশ্চয় দোষের হবে না বিমানের টয়লেটে মিলল ১৪ কেজি সোনা পিরোজপুরের নাজিরপুরে শেখ হাসিনা সেতুর উদ্বোধন করলেন... রাজাপুর ভিজিডি কার্ড বিতরণে দুর্নীতি ও অনিয়মের অভিযোগ স্কুলছাত্রী নিপাকে কৃত্রিম পা লাগাতে নেয়া হবে বিদেশে

স্বামীর অপবাদ সইতে না পেরে গলায় ফাঁস দিয়ে স্ত্রীর আত্মহত্যার চেষ্টা

 হায়াতুজ্জামান মিরাজ আমতলী-বরগুনা সমকাল নিউজ ২৪

স্বামীর হেলাল হাওলাদারের অপবাদ সইতে না পেরে নববধু স্ত্রী রুনা আক্তার (২০) গলায় ফাঁস দিয়ে আত্মহত্যার চেষ্টা করেছে। আহত রুনাকে উদ্ধার করে আমতলী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়েছে। ঘটনা ঘটেছে বৃহস্পতিবার রাতে তালতলী উপজেলার মোমেশেপাড়া গ্রামে।

জানাগেছে, এ বছর জানুয়ারী মাসে বরগুনা সদর উপজেলার রক্ষাচন্দ্রী গ্রামের মৃত্যু ছালাম প্যাদার মেয়ে রুনাকে তালতলী উপজেলার মোমেশেপাড়া গ্রামের সুলতান হাওলাদারের ছেলে হেলাল হাওলাদারের সাথে বিয়ে হয়।

গত ১৬ ফেব্রুয়ারী নববধু রুনাকে স্বামীর বাড়ীতে তুলে নেয়া হয়। তুলে নেয়ার পর থেকেই রুনাকে স্বামী হেলাল বিভিন্ন ভাবে অপবাদ দিয়ে আসছিল এমন অভিযোগ স্ত্রী রুনার। স্বামীর অপবাদ সইতে না পেরে গত ২০ ফেরুয়ারী নববধু রুনা বাবার বাড়ীতে চলে যায়। এ নিয়ে মঙ্গলবার স্থানীয়রা মিমাংশা বৈঠকে বসে। বুধবার রুনা স্বামীর বাড়ীতে আসলে স্বামী হেলাল হাওলাদার স্ত্রী রুনাকে পাঁচ মাসের অবৈধ সন্তান নষ্ট করেছে বলে অপবাদ দেয়। স্বামীর অপবাদ সইতে না পেরে বৃহস্পতিবার রাতে রুনা বাড়ীর সবার অজান্তে ঘরের আড়ার সাথে ওড়না পেচিয়ে আত্মহত্যার চেষ্টা চালায়। ওই বাড়ী সাব্বির নামের একটি শিশু নববধুকে ঝুলন্ত অবস্থায় দেখে ডাক চিৎকার দেয়। তাৎক্ষনিক তাকে উদ্ধার করে আমতলী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে আসে। দ্রুত চিকিৎসায় বেঁচে যায় রুনা।

নববধু রুনা বলেন, বিয়ের পর থেকেই আমার স্বামী হেলাল হাওলাদার আমাকে বিভিন্নভাবে অপবাদ দিয়ে আসছিল। এ নিয়ে স্থানীয়ভাবে শালিশ বৈঠক হয়েছে। বুধবার রাতে আমার স্বামী হেলাল পাঁচ মাসের অবৈধ সন্তান নষ্ট করেছি বলে আমাকে অপবাদ দেয়। স্বামীর অপবাদ সইতে না পেরে গলায় ফাঁস দিয়ে আত্মহত্যার চেষ্টা করেছি।

স্বামী হেলাল বলেন, বিয়ের পর আমার স্ত্রী রুনা আমার বাড়ী থেকে পালিয়ে বাবার বাড়ীতে চলে যায়। স্থানীয়ভাবে শালিশ বৈঠকের পরে বুধবার আমার বাড়ীতে আসে। আমি তাকে কোন অপবাদ দেইনি। বিনা কারনেই গলায় ফাঁস দিয়ে আত্মহত্যার চেষ্টা করেছে।

আমতলী থানার ওসি (তদন্ত) মোঃ নুরুল ইসলাম বাদল বলেন, খবর পেয়ে হাসপাতালে পুলিশ পাঠিয়েছি। ওই নববধুর বাড়ী তালতলীতে। এ বিষয়টি তালতলী থানায় অবহিত করেছি।

Print Friendly, PDF & Email

প্রতিদিনের খবর পড়ুন আপনার ইমেইল থেকে
বরগুনা বিভাগের আলোচিত
ওপরে