২০শে মার্চ, ২০১৯ ইং ৬ই চৈত্র, ১৪২৫ বঙ্গাব্দ

samakalnew24
samakalnew24
শিরোনাম:
বামনা উপজেলায় দুই অভিজ্ঞ প্রার্থীর মধ্যে লড়াই বেশ জমে... আই আর এম টিমের হাতে অবৈধ ভাবে আসা পণ্য বোঝাই ভারতীয় ট্রাক... ভারতে পাচারকালে ২০পিস স্বর্ণেরবার ও নগদ ১লাখ ৩৮হাজার... রাণীনগরে যৌতুকের টাকা না পাওয়ায় স্ত্রীকে পিটিয়ে হত্যার... বাগেরহাটে শরণখোলায় ন্যাশনাল সার্ভিস কর্মীদের...

১০টি অসহায় পরিবারকে উচ্ছেদের অভিযোগ প্রভাবশালী একটি মহলের বিরুদ্ধে।

 বুলবুল, ফরিদপুর। সমকাল নিউজ ২৪

ফরিদপুরের সালথায় একই বাড়িতে কমপক্ষে ১০ টি পরিবারকে উচ্ছেদের জন্যে দফায় দফায় হামলা করছে পতিবেশি প্রভাবশালী একটি মহল বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে।

ফরিদপুরের সালথা উপজেলার যদুনন্দী ইউনিয়নের কুমারকান্দা গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। জানা গেছে গত ০১ মার্চ শুক্রবার সন্ধ্যায় ঐ এলাকার মৃতঃ কাঞ্চন ফকিরের ছেলে মো.আলী ফকিরসহ প্রায় ১০ টি পরিবারকে উচ্ছেদের জন্যে হামলা চালায় প্রতিবেশি ঐ গ্রামের মৃত আনারদ্দিন মাতুব্বরের ছেলে মিরাজ মাতুব্বর ও সিরাজ মাতুব্বর গংরা। জানা গেছে, যদুনন্দী ইউনিয়নের ৬নং জগন্নাথদী মৌজার বিএস ২৯৮৯ নং দাগে ০১ একর ১০ শতাংশ ও ২৯৮৮ বিএস দাগে ৮৮ শতাংশ জমির মধ্যে ১ এক ৭৫ শতাংশ জমির উপর বাড়ি ও দোকান পাট তৈরি করে ৫০ বছরেরও বেশি সময় ধরে বসাবাস করে আসছিল।

হঠাৎ আনুমানিক দশ বছর আগে প্রতিবেশি একই গ্রামের মৃতঃ আনারদ্দিন মাতুব্বরের ছেলে মিরাজ মাতুব্বর, সিরাজ মাতুব্বর ও তা ভাইয়েরা মিলে মৃত কাঞ্চন ফকির গংদের বাড়িসহ বাজারের দোকান পাট জায়গা জমি সব তাদের বলে দাব করে। মিরাজ মাতব্বর গংরা যখন জমি জায়গা দখল করতে আসে, তখন কাঞ্চন ফকির গংরা ভাংগা কোর্টে মিরাজ মাতুব্বর গংদের বিরুদ্ধে মামলা করে। দীর্ঘ দিন মামলা চলার পরে কাঞ্চন ফকির গংদের পক্ষেই রায় হয়। পরে তারা তাদের বাড়িতেই বসবাস করতে থাকেন। আদালতের রায়ের পরে বিবাদী মিরাজ মাতুব্বর গংরা ফরিদপুর জর্জ কোর্টে আপিল করে, তাতে মিরাজ মাতুব্বর গংদের পক্ষে রায় হয়। বাড়িতে এসে কাঞ্চন ফকির গংদের বাড়ি থেকে উচ্ছেদের জন্য দফায় দফায় হামলা চালায়। বাড়িঘর ভাংচুর করেও মালামাল লুটে নিয়ে যায়।

এতেই ক্ষ্যান্ত থাকেনি মিরাজ মাতুব্বর গংরা। বাড়ি থেকে বেরুলেই তাদের কে বিভিন্ন ভয়ভীতি দেখানো হয়। এমনকি বাড়িঘর না ছাড়লে প্রাননাশের হুমকিও দেওয়া হচ্ছে রিতিমতো।

মৃত আলিম ফকিরের ছেলে মাহবুব ফকির বলেন, মিরাজ মাতুব্বররা আমাদেরকে উচ্ছেদের জন্যে তার শ্বশুর যদুনন্দী ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সভাপতি রব মোল্যা তার দলবল নিয়ে এসে বিভিন্ন সময় আমাদের বাড়িতে হামলা চালায়। আমরা আতঙ্কের মধ্যে বসবাস করছি। আমাদের ছেলে মেয়েরা ঠিক মতো স্ক’ল কলেজে যেতে পারছে না। রাতে আমরা পুরুষরা পাহারা দেই আর মহিলা ও বাচ্চারা ঘুমায়। আমরা এর সঠিক সুরাহা চাই প্রসাশনের উর্দ্দতন কতৃপক্ষের হস্তক্ষেপ চাই।

স্থানীয় সিদ্দিক মাতুব্বর বলেন, মিরাজ মাতুব্বররা আদালত থেকে যে রায় পেয়েছে তা আমাদেরকে দেখায়নি। আদালত যদি তাদের পক্ষে রায় দেয় আমরা আদালতের রায় মানি। কিন্তু এলাকার গন্যমান্য দশজনকে অবহিত না করেই তারা দফায় দফায় হামলা চালাচ্ছে এই অসহায় পরিবার ১০টি উপর, এটা অমানবিক।

আর এক ভুক্তভোগি পান্নু ফকির বলেন, মিরাজ মাতুব্বর গংরা যে কোন সময় আমার উপর হামলা করতে পারে, কারন তারা মনে করে পান্নু ফকির না থাকলে তাদের সুবিদে হবে। তিনি আরও বলেন,ওরা জাল দলিল তৈরি করে আদালতের মাধ্যমে রায় করিয়ে এনেছে। কারন আমরা ৫০ বছরের ও বেশি সময় ধরে এই জমি ক্রয় করে বসবাস করছি। প্রকৃত মালিক এ দেশে নাই, তারা আমাদের কাছে এই জমি বিক্রি করে ভারতে চলে গেছে। আমরা এ ব্যাপারে উর্দ্ধতন কতৃপক্ষের নিকট সুবিচার চাইবো।

Print Friendly, PDF & Email

প্রতিদিনের খবর পড়ুন আপনার ইমেইল থেকে
ওপরে