১৪ই অক্টোবর, ২০১৯ ইং ২৯শে আশ্বিন, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ

samakalnew24
samakalnew24
শিরোনাম:
বরগুনায় আন্তর্জাতিক দুর্যোগ প্রশমন দিবস পালিত... বরগুনায় বিএনপির বিক্ষোভ সমাবেশে পুলিশের লাঠিচার্জ॥... আমতলীতে সময় মেডিকেয়ার এন্ড হসপিস এর ক্লিনিক্যাল... ঠাকুরগাঁও সদর উপজেলা আ’লীগের ত্রি-বার্ষিক সম্মেলনে... সনাতন ধর্মালম্বিদের আজ কোজাগরী লক্ষ্মীপূজা

১৫ বছরেও সন্তান হত্যার বিচার পায়নি অসহায় বৃদ্ধ পিতা

 স্বপন খান,শিবপুর, নরসিংদী সমকালনিউজ২৪

শিবপুর উপজেলার চৌঘরিয়া গ্রামের মৃত লাল মিয়ার ছেলে বজলুর রহমান ফকির ১৫ বছরেও সন্তান হত্যার বিচার পায়নি বলে অভিযোগ করেন।

সূত্রে জানায়, ২০০৪ সালের ২০ ডিসেম্বর বজলুর রহমানের ছেলে রবিউল্লাহ(১৪) নিখোঁজ হয়। পরদিন রবিউল্লার লাশ গাজীপুর জেলার কালিগঞ্জ থানার ঘোড়াশাল ব্রিজের পশ্চিম পাশে জংলার কাছে একটি গাছে ঝুলন্ত অবস্থায় পাওয়া যায়। সংবাদ পেয়ে কালিগঞ্জ থানা পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে লাশটি উদ্ধার করে এবং একটি অপমৃত্যু মামলা দায়ের করেন। বজলুর রহমান ফকির সংবাদ পেয়ে লাশটি দেখে নিজের ছেলে সনাক্ত করে এবং ময়না তদন্ত শেষে নিহতের লাশ পারিবারিক কবরস্থানে দাফন করা হয়।

এব্যাপারে বজলুর রহমান ফকির কালিগঞ্জ থানায় ও আদালতে (১) মোঃ সোহরাব হোসেন, পিতা-ছমির উদ্দিন, (২)নয়ন মিয়া, পিতামৃত- তমিজ উদ্দিন, (৩) বিল্লাল, পিতা- তিতা সামসু, (৪) জুয়েল, পিতা- আবু কালাম, (৫) রাসেল, পিতা- জামাল উদ্দিন, (৬) মামুন, পিতা- কিরন, (৭) ইকরাম, পিতামৃত- সিরাজ উদ্দিন, সর্বসাং- চৌঘরিয়া গংদের নামে একটি হত্যা মামলা দায়ের করেন।

বজলুর রহমান আরও জানান, পারিবারিক শত্রæতার জের ধরে উপরে উল্লেখিত খুনিরা আমার ছেলেকে নির্মমভাবে হত্যা করে। অর্থ দরিদ্র ও নিরক্ষর হওয়ায় তার ছেলের মামলাটি চাপা পড়ে আছে ১৫ বছরে যাবৎ।

উপরোক্ত বিষয় নিয়ে এলাকায় গ্রাম্য শালিশীর মাধ্যমে ১ লক্ষ টাকায় রফা দফা হয়। কিন্তু এড. খোরশেদ আলম ভূইয়া বজলুর রহমানকে ১০ হাজার টাকা দিয়ে আপোষ নামায় স্বাক্ষর করতে বললে বজলুর রহমান এতে রাজি না হয়ে ফিরে আসে বলে বজলুর রহমান জানায়। পুত্র শোকে শোকাহত বজলুর রহমান কান্না জরিত কন্ঠে গত ৩ এপ্রিল শিবপুর প্রেসক্লাব কার্যালয়ে গিয়ে সাংবাদিকদের এসব তথ্য দেন এবং লিখিত অভিযোগ করেন।

বাদী জানান খুনিরা তার ছেলেকে মেরে গাছে ঝুলিয়ে আত্মহত্যা বলে চালিয়ে দিয়ে মামলাটি ধামাচাপা দেওয়ার চেষ্টা করছে। বর্তমানে খুনিরা প্রকাশ্য দিবালোকে ঘুরছে।

প্রতিদিনের খবর পড়ুন আপনার ইমেইল থেকে
নরসিংদী বিভাগের সর্বশেষ
নরসিংদী বিভাগের আলোচিত
ওপরে