২২শে জুলাই, ২০১৯ ইং ৭ই শ্রাবণ, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ

samakalnew24
samakalnew24
শিরোনাম:
রাজশাহীর চারঘাটে ছেলেধরা সন্দেহে ৫ এনজিও কর্মীকে... এসএমপির ১৬ নারী কনস্টেবলকে কম্পিউটার প্রশিক্ষণ প্রদান দুর্গাপুরে ছেলেধরা সন্দেহে আটক – ১ কলারোয়ার বাঁটরায় বর্ষা মৌসুমের টমেটো চাষে আগ্রহ বাড়ছে... রিফাত হত্যা : রিশান ফরাজীর স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি

৩৮ বছর বয়সী ভাতিজার হাতধরে ৫০ বছর বয়সী ৩ সন্তানের জননী চাচী উধাও

 বুলবুল, ফরিদপুর : সমকাল নিউজ ২৪

ফরিদপুরের সালথায় ৩৮ বছর বয়সী ভাতিজার প্রেমে পড়ে ৫০ বছর বয়সী ৩ সন্তানের জননী চাচী নগদ সাড়ে তিনলাখ টাকা ও সাড়ে তিনভরি স্বর্ণ নিয়ে উধাও হওয়ার চাঞ্চল্যকর তথ্য পাওয়া গেছে। ঘটনাটি ঘটেছে উপজেলার খারদিয়া ইউনিয়নের উজিরপুর গ্রামে।

অনুসন্ধানে জানাযায়, মালয়েশিয়া প্রবাসী উজিরপুর গ্রামের জিয়ারুল শেখের স্ত্রী হেমা বেগমের সাথে দীর্ঘদিন যাবৎ মন দেওয়া-নেওয়া চলছিলো একই গ্রামের মৃত আ: মাজেদ ফকির (নিধু ফকির) এর ছেলে সোহেল রানা ফকিরের সাথে। ঘটনার দিন গত পহেলা মে হেমা কাহাকেও কিছু না-জনিয়ে সকালে ঘর থেকে বেরিয়ে গিয়ে আর ঘরে ফেরেনি। অনেক খোঁজাখুঁজির পর জানাযায়, সে নব্য স্বামীর বাড়িতে আছে। হেমা বেগমের প্রথম সন্তান মেয়ে সুমি আক্তার বিবাহিতা ও এক সন্তানের জননী, বড় ছেলে নাজমুল শেখ এবার এসএসসি পরীক্ষা দিলেও পাশ করতে পারেনি, তৃতীয় ছেলে সালাউদ্দীন জেএসসি পরীক্ষার্থী। এদিকে সোহেল রানা জনৈক হাফেজ সাহেবের মেয়েকে বিয়ে করেও পরকীয়ার জালে আটকে যাওয়ার কারনে সেই স্ত্রীকে তালাক দিতে হয়েছে।

এ বিষয়ে এক প্রশ্নের জবাবে সোহের রানা ফকির বলে, আমরা কোর্ট ম্যারিজ করেছি। আমাদের দুজনের সম্মতিতেই আমরা সব কিছু করেছি। স্ত্রী হিসেবে হেমা বেগম এখন আমার বাড়িতেই আছে।

অপরদিকে হেমা বেগমের বড় ছেলে এবারের এসএসসি পরীক্ষার্থী নাজমুল শেখ জানান, মা’র পরকয়িার কারনে আমি লেখাপড়া ঠিকমতো করতে পারিনি। আমার পিতার এতো কষ্টের অর্জিত সম্পদ নিয়ে সে অন্যের হাত ধরে চলে গেছে, আমরা লজ্জায় মুখ দেখাতে পারিনা। বিষয়টি এলাকায় এখন মুখোরোচক আলোচনায় পরিনত হয়েছে।

Print Friendly, PDF & Email

প্রতিদিনের খবর পড়ুন আপনার ইমেইল থেকে
ফরিদপুর বিভাগের সর্বশেষ
ওপরে