২২শে জুলাই, ২০১৯ ইং ৭ই শ্রাবণ, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ

samakalnew24
samakalnew24
শিরোনাম:
যশোরের শার্শায় প্রসূতি নারীর তিন পুত্র সন্তানের জন্ম চাঁদপুরে স্কুল শিক্ষিকার গলাকেটে হত্যা বগুড়ায় ছেলে ধরা সন্দেহে এক ব্যক্তিকে পুলিশে সোপর্দ বরগুনায় বঙ্গবন্ধু ও বঙ্গমাতা শেখ ফজিলাতুন্নেছা... কোটচাঁদপুরে অবৈধ গর্ভপাতের মূলহোতা রিনা পারভিন আটক

৯৫তম জন্ম বার্ষিকীতে খুলনার সিটি মেয়র—-তালুকদার আঃ খালেক

  সমকাল নিউজ ২৪

দক্ষিনাঞ্চলের শিক্ষানুরাগী ও অসহায় মানুষের সহায়ক ছিলেন ফাদার মারিনো রিগন, তিনি শুধু একজন ধর্মযাজক ছিলেন না তার অসাম্য অবদানের এ অঞ্চলের প্রতিটি মানুষের হৃদয়ের ষ্পন্দন।

১৯৫১ সালে এদেশে আসার পর মংলায় শেহালাবুনিয়ায় দক্ষিনাঞ্চলের সর্ব বৃহত্তম বিদ্যাপিঠ সেন্ট পলস উচ্চ বিদ্যালয় ও এ এলাকার অসহায় মানুষের জন্য প্রথম অত্যাধুনিক বেসরকারী চিকিৎসালয় সেন্ট পলস হাসপাতাল প্রতিষ্ঠা করেন। ফাদার মারিনো রিগনের মস্তিস্কে ছিলো রবীন্দ্রনাথ এবং অন্তরে ছিলো লালনশাহ। মানুষ হওয়া এবং মানুষকে ভালোবাসার বাণী তিনি প্রচার করতেন। যাজকীয় জীবনের বাইরে বাংলাদেশে তিনি ব্যস্ত ছিলেন যাত্রা, কীর্তন, নগর কীর্তন, পালাগান, কবিগানসহ বিভিন্ন সাংস্কৃতিক কর্মকান্ড নিয়ে। ধর্মজীবন এবং শিল্প জীবনকে ফাদার রিগন পৃথক ভাবে দেখতেন না।

মুক্তিযুদ্ধ এবং বাংলাদেশের অকৃত্রিম বন্ধু, অনুবাদক, কবি, সাহিত্যিক ও শিক্ষানুরাগী ফাদার মারিনো রিগনের ৯৫তম জন্ম বার্ষিকী উপলক্ষে মোংলা সরকারি কলেজ, সেন্ট পলস উচ্চ বিদ্যালয় ও সম্মিলিত সাংস্কৃতিক জোটের আয়োজনে কলেজ চত্বওে স্মরণসভা অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে খুলনা সিটি করপোরেশনের মেয়র আলহাজ্ব তালুকদার আব্দুল খালেক এ কথা বলেন। খৃষ্ঠীয় ধর্মযাজক মুক্তিযোদ্ধা ফাদার মারিনো রিগানের নানা আয়োজনে পালিত হয়েছে ৯৫ তম জন্ম বার্ষিকী।

এ উপলক্ষে মঙ্গলবার সকালে বিভিন্ন শ্রেনী পেশার মানুষ মোংলার ক্যাথলিক গির্জা সংলগ্ন রিগানের সমাধিতে ফুল দিয়ে শ্রদ্ধা জানান। এর পর বিভিন্ন স্কুল কলেজের শিক্ষার্থীরা র‌্যালি সহকারে পৌর শহরের প্রধার প্রধান সড়ক পদক্ষিন করে। পরে মোংলা সরকারী কলেজে প্রাঙ্গনে স্বরন সভায় প্রধান অতিথি ছিলেন খুলনা সিটি মেয়র তালুকদার আবদুল খালেক।

ফাদার মারিনো রিগন ১৯২৫ সালের ৫ ফেব্রয়ারী ইতালির ভেনিস শহরের অদুরে ভিচেন্সার ভিল্লাভেলা গ্রামে জন্ম গ্রহন করেন। ২৬ বছর বয়সে ১৯৫১ সালের ১০ মার্চ খ্রীষ্টীয় ধর্মযাজক হিসেবে ইতালীর পিয়াছো শহরের জেভেরিয়ান সম্প্রদাপয়ের যাজক নির্বাচিত হন।

১৯৫৩ সালের ৭ জানুয়ারী তিনি বাংরাদেশে (তৎকালীন পুর্ব পাকিস্তান) আসেন। সহকারী পালক পুরোহিত হিসাবে যোগদেন কুস্টিয়ার ভবরপাড়া মিশন পল্লীতে। ১৯৫৪ সালে মোংলার মালগাজী মিশনে, ১৯৫৭ সালে খুলনায়, ১৯৬৪ সালে যশোর ১৯৭০ সালে গোপালগঞ্জের বানিয়ারচর এবং ১৯৭৯ সাল থেকে মোংলার শেহালাবুনিয়ায় তিনি অবস্থান করেন। ১৯৭১সালে বাংলাদেশের মুক্তিযুদ্ধ কালীন তিনি বানিয়াচরে একটি চিকিৎসা কেন্দ্রে কর্মরত ছিলেন । সে সময়ে তিনি জীবনের ঝুঁকি নিয়ে নিজ হাতে সেবা করেছেন অসংখ্য যুদ্ধাহত মুক্তিযোদ্ধাকে ।

১৯৭১ সালে মুক্তিযুদ্ধের সময় রিগন অসুস্থ ও যুদ্ধাহত মুক্তিযোদ্ধাদের আশ্রয় এবং সেবা দেয়ার মধ্যদিয়ে সরাসরি মুক্তিযুদ্ধে অবদান রাখেন। এ অবদানের জন্য বাংলাদেশ সরকার ২০০৯ সালে তাকে সম্মানসূচক নাগরিকত্ব প্রদান করে। ২০১৭ সালের ২০ অক্টোবর ইতালীয়ার একটি হাসপাতালে তার মৃত্যু হয়।

তার শেষ ইচ্ছা অনুযায়ী গত বছরের ২১ অক্টোবর রবিবার বিকাল সাড়ে ৪টায় মোংলার শেলাবুনিয়ায় সেন্টপলস ক্যাথলীক গির্জার সামনে সমাহিত করা হয় ফাদার মারিনো রিগনকে। মোংলা সরকারি কলেজের অধ্যক্ষ গোলাম সরোয়ারের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত স্মরণ সভা অনুষ্ঠানে অন্যান্যের মধ্যে উপজেলা চেয়ারম্যান আবু তাহের হাওলাদার, উপজেলা নির্বাহী অফিসার মোঃ রবিউল ইসলাম, থানা ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মোঃ ইকবাল বাহার চৌধুরী, উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি সুনীল কুমার বিশ্বাস, সাধারণ সম্পাদক ইব্রাাহিম হোসেন, ফাদার রিগন শিক্ষা উন্নয়ন ফাউন্ডেশন’র সুভাষ চন্দ্র বিশ্বাস, পৌর আওয়ামী লীগের সভাপতি আলহাজ্ব শেখ আব্দুস সালাম, সাধারণ সম্পাদক শেখ আঃ রহমান, মোংলা প্রেসক্লাব সভাপতি এইচ এম দুলাল, উপজেলা যুবলীগের সভাপতি ই¯্রাফিল হাওলাদার, প্রভাষক মাহবুবুর রহমান, প্রভাষক মনোজ কান্তি বিশ্বাস, সম্মিলিত সাংস্কৃততি জোটের নেতৃবৃন্দসহ বিভিন্ন সামাজিক এবং সাংস্কৃতিক সংগঠনের নেতৃবৃন্দরা এসময় উপস্থিত ছিলেন।

Print Friendly, PDF & Email

প্রতিদিনের খবর পড়ুন আপনার ইমেইল থেকে
বাগেরহাট বিভাগের সর্বশেষ
বাগেরহাট বিভাগের আলোচিত
ওপরে