২২শে সেপ্টেম্বর, ২০১৯ ইং ৭ই আশ্বিন, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ

samakalnew24
samakalnew24
শিরোনাম:
বগুড়ায় বিশ্ব নদী রক্ষা দিবস পালিত চাঁদপুরে ইলিশের আমদানী বাড়লেও দাম না কমায় হতাশ ক্রেতারা আত্রাইয়ে পানিতে ডুবে মাদ্রাসা ছাত্রীর মৃ’ত্যু; ১৯... পাইকগাছায় ভুয়া ঠিকানা দিয়ে বিয়ে করে দুই লক্ষ টাকা... বাল্যবিবাহ-ই’ভটিজিং-স’ন্ত্রাস ও মা’দক প্রতিরোধে...

ভাষা শহীদদের স্মরনে রাজশাহী কলেজের ফুলেল শ্রদ্ধা।

 সবুজ / রাজশাহী কলেজ প্রতিনিধি। সমকালনিউজ২৪

শ্রদ্ধার ফুলে ফুলে ভরে গেছে রাজশাহীর শহিদ মিনারগুলো। দিবসের প্রথম প্রহর থেকেই শহিদদের স্মৃতির প্রতি শ্রদ্ধা জানান রাজশাহীর সর্বস্তরের মানুষ। সকালে প্রভাতফেরীসহ পালিত হয় নানান আনুষ্ঠানিকতা। এ নিয়ে রাজনৈতিক, সামাজিক ও সাংস্কৃতিক সংগঠনগুলো নানান কর্মসূচি পালন করছে।

দিবসের প্রথম প্রহরে রাজশাহী কলেজ শহীদ মিনারে পুষ্পস্তবক অর্পণ করেন রাজশাহী সিটি করপোরেশনের মেয়র এএইচএম খায়রুজ্জামান লিটন। অধ্যক্ষ প্রফেসর মহা. হবিবুর রহমান এবং উপাধ্যক্ষ প্রফেসর আল ফারুক চৌধুরীর সাথে রাজশাহী কলেজের শ্রদ্ধার্ঘ নিবেদনে অংশ নেন মেয়র।সেখান থেকে মেয়র খায়রুজ্জামান লিটনের নেতৃত্বে সেখান থেকে একটি র‌্যালি বের করা হয়। র‌্যালিটি মনিচত্বর, সাহেববাজার, জিরোপয়েন্ট হয়ে ঐতিহাসিক ভূবনমোহন পার্ক শহীদ মিনার প্রাঙ্গনে গিয়ে শেষ হয়। এরপর মেয়র খায়রুজ্জামান লিটনের নেতৃত্বে ভূবনমোহন পার্ক শহীদ মিনারে পুষ্পস্তবক অর্পন করেন সিটি করপোরেশনের কাউন্সিলর, কর্মকর্তা ও কর্মচারীবৃন্দ। সেখানে ভাষা শহিদদের স্মরণে এক মিনিট নীরবতা পালন করা হয়।

প্রথম প্রহরেই নগরীর ভুবন মোহন পার্ক শহীদ স্মৃতিস্তম্ভে রাজশাহী-২ (সদর) আসনের সংসদ সদস্য ও বাংলাদেশের ওয়ার্কার্স পার্টির সাধারণ সম্পাদক ফজলে হোসেন বাদশার পক্ষে পুস্পস্তবক অর্পণ করেন ১৪ দলের স্থানীয় নেতারা। এ সময় নগর ওয়ার্কার্স পার্টির সাধারণ সম্পাদক দেবাশিষ প্রামানিক দেবুসহ দলটির নেতৃবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন। তারা পার্টি ও গণসংগঠনের পক্ষ থেকেও পুস্পস্তবক অর্পণ করে শহীদদের প্রতি শ্রদ্ধা জানান।

অন্যদিকে, একুশের প্রথম প্রহরে রাজশাহী কোর্ট শহীদ মিনারে পুস্পস্তবক অর্পণ করেন বিভাগীয় ও জেলা পর্যায়ের বিভিন্ন সরকারি দপ্তরের কর্মকর্তারা। রাত ১২টা ১ মিনিটে এখানে প্রথমেই শ্রদ্ধা নিবেদন করেন বিভাগীয় কমিশনার নূর-উর-রহমান।
এরপর একে একে শ্রদ্ধা জানান পুলিশের রাজশাহী রেঞ্জের উপমহাপরিদর্শক এম খুরশীদ হোসেন, রাজশাহী মহানগর পুলিশের কমিশনার একেএম হাফিজ আক্তার, জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান মোহাম্মদ আলী সরকার, জেলা প্রশাসক এসএম আবদুল কাদের ও জেলার পুলিশ সুপার মো. শহীদুল­াহ। এরপর এখানে বিভিন্ন সরকারি দপ্তরের কর্মকর্তা-কর্মচারিরা পুষ্পার্ঘ অর্পণের মধ্যে দিয়ে বায়ান্নোর ভাষা আন্দোলনে শহীদদের প্রতি গভীর শ্রদ্ধা নিবেদন করেন।

অন্যদিকে, ভূবনমোহন পার্কে রাতেই শ্রদ্ধা নিবেদন করে রাজশাহী সাংবাদিক ইউনিয়ন (আরইউজে)। এ সময় বাংলাদেশ ফেডারেল সাংবাদিক ইউনিয়নের সহ-সভাপতি মামুন-অর-রশীদ, সদস্য জাবীদ অপু, আরইউজের সভাপতি কাজী শাহেদ, সাধারণ সম্পাদক তানজিমুল হক প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

এখানে সাধারণ মানুষের পাশাপাশি জাতীয় সমাজতান্ত্রিক দলের (জাসদ) মহানগর শাখা, জেলা কমিউনিস্ট পার্টি (সিপিবি), জেলা ন্যাশনাল আওয়ামী পার্টি (ন্যাপ), রাজশাহী মেট্রোপলিটন প্রেসক্লাব, রাজশাহী চেম্বার অব কমার্স অ্যান্ড ইন্ডাস্ট্রি, রাজশাহী ওয়াসা, ছাত্রমৈত্রী, যুবমৈত্রী, শ্রমিফ ফেডারেশনসহ বিভিন্ন রাজনৈতিক ও সামাজিক সংগঠনের নেতৃবৃন্দ পুস্পস্তবক অর্পণ করে শহীদদের প্রতি শ্রদ্ধা নিবেদন করেন। রাজশাহী কলেজ শহীদ মিনারে শ্রদ্ধা নিবেদন করেন বিএনপির নেতৃবৃন্দ।
সকাল ৯টায় নগর আওয়ামী লীগের দলীয় কার্যালয়ের সামনে থেকে প্রভাত ফেরি বের করা হয়। সেটি রাজশাহী কলেজে গিয়ে শেষ হয়। সেখানে নগর আওয়ামী লীগ ও সহযোগী সংগঠনের নেতাকর্মীরা পুস্পস্তবক অর্পণের মাধ্যমে ভাষা আন্দোলনের শহীদদের প্রতি শ্রদ্ধা জানান।
এ সময় নগর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ডাবলু সরকারসহ বিভিন্ন স্তরের নেতাকর্মীরা উপস্থিত ছিলেন।

সকালে রাজশাহী কলেজ থেকে আলাদা প্রভাত ফেরী বের হয়। সেটিও নগরীর প্রধান প্রধান সড়ক প্রদক্ষিণ করে। সকাল থেকেই প্রভাত ফেরী নিয়ে শহিদ মিনারে যান বিভিন্ন বয়সী সর্বস্তরের মানুষ। পুরো নগরী পরিনত হয় প্রভাত ফেরীর নগরীতে। এনিয়ে নগরজুড়ে বিভিন্ন কর্মস‚চি পালিত হচ্ছে।

এদিকে, সকালে রাজশাহী কলেজের মুসলিম ছাত্রাবাস এলাকায় অবস্থিত দেশের প্রথম শহীদ মিনারে শ্রদ্ধা নিবেদন করে রাজশাহী কলেজে রিপোর্টার্স ইউনিটি (আরসিআরইউ)। সংগঠনের সভাপতি বাবর মাহমুদের নেতৃত্বে সংগঠনের উপদেষ্টা ড. সৈয়দ আলী আহসান, আজমত আলী রকি ও মোহাম্মদ মোস্তাফিজুর রহমানসহ বিভিন্ন পর্যায়ের সদস্যরা এসময় উপস্থিত ছিলেন।

দেশের প্রথম এই শহীদ মিনারের রাষ্ট্রীয় স্বীকৃতি আদায়ে অনলাইন ভোটিং কার্যক্রম চালাচ্ছে আরসিআরইউ। তারুণ্যের এই উদ্যোগকে স্বাগত জানিয়েছেন রাজশাহীর সর্বস্তরের মানুষ।

দেশের যে কোন প্রান্ত থেকে barendraexpress.com.bd/firstshahidminar এই লিংকে গিয়ে যে কেউ মতামত দিতে পারেন। দালিলিক প্রমানসহ গৃহিত মতামত পিটিশন আকারে পৌঁছে যাবে প্রধানমন্ত্রীর দপ্তরে।

প্রতিদিনের খবর পড়ুন আপনার ইমেইল থেকে
রাজশাহী বিভাগের সর্বশেষ
ওপরে